মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯, ০৯:০৭ অপরাহ্ন

ডাকসু নির্বাচন বাতিল দাবিতে অনশন চলছে, একজন অসুস্থ

ডাকসু নির্বাচন বাতিল দাবিতে অনশন চলছে, একজন অসুস্থ

ভোটে কারচুরি, ব্যালট বাক্স ছিনতাই, রাতের আধারে জালভোট, ভোটকেন্দ্র নিয়ন্ত্রণসহ ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ তুলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচন বাতিল চেয়ে অনশন অব্যাহত রয়েছে। বৃহস্পতিবার তৃতীয় দিনের মতো অনশন চালিয়ে যাচ্ছেন সাত প্রার্থী ও শিক্ষার্থী।মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে তারা রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অনশনে বসেন।

এদিকে অনশনের কারণে অসুস্থ হয়ে পড়েছে এক শিক্ষার্থী, তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়েছে।

অনশনকারী সাত শিক্ষার্থীর মধ্যে পাঁচজন কেন্দ্রীয় ও বিভিন্ন হল সংসদে নির্বাচন করেছেন। তাদের মূল দাবি ১১ মার্চের নির্বাচন বাতিল করে পুনর্নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হোক। পাশাপাশি ওই নির্বাচনে দায়িত্বরতদের পদত্যাগেরও দাবি জানিয়েছেন তারা।

অনশনে বসা শিক্ষার্থীরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শোয়েব মাহমুদ, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের মীম আরাফাত মানব, একই বিভাগের চতুর্থ বর্ষের তাওহীদ তানজীম, পপুলেশন সায়েন্সের দ্বিতীয় বর্ষের মো. মাঈনউদ্দিন, দর্শন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের অনিন্দ্য মণ্ডল, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের রাফিয়া তামান্না এবং প্রাণিবিদ্যা বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের আল মাহমুদ তাহা।

এর মধ্যে মীম আরাফাত মানব ডাকসুর কেন্দ্রীয় সংসদে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য সমর্থিত প্যানেলে আন্তর্জাতিক সম্পাদক, তাওহীদ তানজীম স্বতন্ত্রভাবে ডাকসুতে ছাত্র পরিবহন সম্পাদক, শোয়েব মাহমুদ শহীদুল্লাহ হল সংসদে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য মনোনীত সাহিত্য সম্পাদক, অনিন্দ্য মণ্ডল জগন্নাথ হলে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য সমর্থিত সদস্য এবং মো. মাঈনউদ্দিন হাজী মুহম্মদ মুহসীন হল সংসদে প্রগতিশীল ছাত্র ঐক্য ও স্বতন্ত্র জোট সমর্থিত সংস্কৃতি সম্পাদক প্রার্থী ছিলেন।

বৃহস্পতিবার অনশনকারীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, অনশনে বসা অনিন্দ্য মণ্ডল বুধবার রাতে অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এদিকে অনশনকারীদের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করে রাজু ভাস্কর্যের সামনে অবস্থান নিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের ১৪ জন শিক্ষার্থী। তাদের হাতে নানা লেখাযুক্ত পোস্টার দেখা গেছে।

দীর্ঘ ২৮ বছর পর ১১ মার্চ অনুষ্ঠিত ডাকসু নির্বাচনে ২৫টি পদের মধ্যে দুটি ছাড়া সব পদে জয় পায় ছাত্রলীগ।ভোটের দিনই নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগ তুলে ভোট বর্জন করে ছাত্রলীগ ছাড়া সব প্যানেল। এরা হলো- ছাত্রদল, বামজোট, ইসলামী আন্দোলন, স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জোট ও সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ।তারা পুনঃতফসিল ঘোষণায় ভিসিকে তিন দিনের আলটিমেটাম দিয়েছে। শনিবার সেই সময়সীমা শেষ হবে।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com