রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০, ০৩:০৩ পূর্বাহ্ন

মেয়ের ছাতা ধরে বাবার কান্না

মেয়ের ছাতা ধরে বাবার কান্না

এই ভদ্রলোক দিয়ার হতভাগ্য বাবা জাহাঙ্গীর আলম। আজ সকালে মেয়েকে যেখানটায় বাস পিষে দিয়ে গেছে; সেখানটায় বসে মেয়ের দুমড়ে-মুচড়ে যাওয়া ছাতার অংশ ধরে কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

সাংবাদিকদের আবেগাপ্লুত হয়ে জাহাঙ্গীর বলেন, আমি মেয়ে হত্যার বিচার চাই। এটাতো দুর্ঘটনা না। এটা তো হত্যা?

গতকাল রবিবার দুপুরে রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের অদূরে বিমানবন্দর সড়কে বাসচাপায় নিহত শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দুই শিক্ষার্থীর একজন দিয়া খানম ওরফে মীম।

দুই সহপাঠী নিহতের প্রতিবাদে কুর্মিটোলার শহীদ রমিজউদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের শিক্ষার্থীরা আজ সকাল থেকে বিমানবন্দর সড়কে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করে। তাদের সঙ্গে বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরাও যোগ দেয়। সেখানে মীমের বাবাও আসেন।

জাহাঙ্গীর নিজেও একজন গাড়িচালক। তিনি ২৭ বছর ধরে ঢাকা-রাজশাহী-চাপাইনবাবগঞ্জ রুটে একতা পরিবহনের বাস চালান।

জাহাঙ্গীর বলেন, অনেক কষ্টের জীবন আমার। মেয়েকে বুঝতে দেই নাই কষ্টে আছি। শুধু চাইছি মেয়েটা বড় হউক। ওরে নিয়ে কত স্বপ্ন চিলো আমার। সব শেষ হয়ে গেলো।

বাসচাপায় প্রাণহানির ঘটনায় গতকাল রাতে ক্যান্টনমেন্ট থানায় মামলা করছেন নিহত শিক্ষার্থী দিয়া খানমের বাবা জাহাঙ্গীর আলম।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com