বুধবার, ২১ অগাস্ট ২০১৯, ০৭:৫১ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
‘গার্লস প্রায়োরিটি’ গ্রুপের এডমিন তাসনুভা কারাগারে বিএনপির শীর্ষ নেতারা আত্মসমর্পণ করছেন কবে? খালেদা জিয়ার শোকবার্তা প্রস্তুত করা ছিল : প্রধানমন্ত্রী ঘুষের নাম বড় বাবু, স্কুল প্রতি ১০ হাজার টাকা ময়মনসিংহে জেলা ছাত্রলীগের আয়োজনে গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন শিশুকে অন্তঃসত্ত্বা করে ‘আত্মহত্যা’ করল ধর্ষক কুপ্রস্তাবে সাড়া না দেয়ায় সিটি ব্যাংকে চাকরি যাওয়ার অভিযোগ আপিল শুনানির জন্য গ্রেনেড হামলার পেপারবুক তৈরি হচ্ছে ছুটি শেষে এসে দেখে গার্মেন্ট বন্ধ, প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার হবিরবাড়ী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আয়োজনে জাতীয় শোক দিবস পালিত
লালমনিরহাটে ব্রীজ নির্মানে নিম্নমানের নির্মান সামগ্রী ব্যবহার, দুই বছরেও শেষ হয়নি কাজ ভোগান্তিতে জনসাধারণ

লালমনিরহাটে ব্রীজ নির্মানে নিম্নমানের নির্মান সামগ্রী ব্যবহার, দুই বছরেও শেষ হয়নি কাজ ভোগান্তিতে জনসাধারণ

এস.এম সহিদুল ইসলাম লালমনিরহাট প্রতিনিধি:

গ্রামীণ জনপদের সাধারণ মানুষের চলাফেরা নিশ্চিত করতে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার আউলিয়ারহাট ভায়া আমিনগঞ্জ এলাকায় ১টি ব্রীজ নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হয় গত ২৩ জুন ২০১৬ তারিখের দিকে। গ্রামীণ জনপদের সর্বসাধারণ মানুষের যাতায়াত ও তাদের উৎপাদিত পণ্য বাজারজাতকরনে সুবিধাসহ চলাফেরা নিশ্চিত করতে এ ব্রীজ নির্মানের কাজ শেষ করার কথা ৩১ অক্টোবর ২০১৭তে। কিন্তু ঠিকাদারের দায়িত্বহীনতার কারণে এখনো শেষ হয়নি ব্রীজের নির্মাণ কাজ। ফলে বর্ষাতে ওইসব এলাকার প্রায় ৪০/৫০টি গ্রামের কয়েক হাজার সাধারন মানুষের দুর্ভোগ এখন চরমে। এমনকি জরুরী চিকিৎসার প্রয়োজন হলেও নিরুপায় গ্রামবাসী শহরাঞ্চলের চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানগুলোতে যেতে পারছেন না জীবন বাঁচাতে। শুধু তাই নয়, নিত্য প্রয়োজনীয় উৎপাদিত পণ্য বাজারে নিতে না পাড়ায় এসব গ্রামের অসহায় কৃষকরা বঞ্চিত হচ্ছেন ন্যায্য মূল্য থেকে। এছাড়া স্কুল-কলেজে যাতায়াত করতে না পেরে লেখাপড়ায় পিছিয়ে পড়ছে এসব এলাকার শিক্ষার্থীরা। এমন সব নানামূখি সমস্যা সমাধানে দ্রুত ব্রীজ নির্মাণ কাজ শেষ করে চলাচলের উপযোগী করার দাবী এলাকাবাসীর।

গত ২৩ জুন ২০১৬ইং তারিখে ৪৬২০ চেইনেজে ৩৬ মিটার আর সি সি গার্ডার ব্রিজের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন সমাজকল্যান প্রতিমন্ত্রী আলহাজ্ব নুরুজ্জামান আহমেদ এমপি। ব্রীজের নির্মাণ কাজের গুণগতমান খুবই নিম্নমানের নির্মান সামগ্রী ব্যবহার করা হচ্ছে মর্মে অভিযোগ স্থানীয় জনসাধারণের। ১ কোটি ১৩ লক্ষ ১৭ হাজার ২শত ৬৬ টাকা ৫৬ পয়সা চুক্তিমূল্যে ঠিকাদার মোঃ গোলাম রব্বানী ব্রিজের নির্মাণ কাজ করছেন। কার্যাদেশের সময় মোতাবেক কাজ শুরু না করায় নির্ধারিত সময়ে ব্রিজের নির্মাণ কাজ শেষ হয়নি। যথাযথ তদারকির অভাব ও ঠিকাদারের  গাফিলতির কারণে বর্ধিত সময়ে ব্রিজের নির্মাণ কাজ শেষ করা সম্ভব হয়নি মর্মে স্থানীয়রা আশঙ্কা করছেন।

এলাকাবাসী জানান, ব্রিজের নির্মাণ সামগ্রী খুবই নিম্নমানের। ব্রিজের পাইলিং নির্মাণে সিডিউল অনুসরণ করা হয়নি। ব্রিজ নির্মাণে ঠিকাদারের প্রয়োজনীয় উপকরণের অভাব ছিল। গুণগতমান নিশ্চিতের জন্য ল্যাব টেস্টে প্রদর্শিত নির্মাণ সামগ্রীর সাথে ব্রিজের ব্যাবহারকৃত নির্মাণ সামগ্রীর মিল নেই।

এ বিষয় ঠিকাদার গোলাম রব্বানী’র সাথে মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে ও  তিনি ফোন রিসিভ করেনি।

 

এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ উপজেলা প্রকৌশলী পারভেজ নেওয়াজ বলেন,  নির্ধারিত সময়ের মধ্যে  ব্রীজের কাজ শেষ করতে না পারায় ঠিকাদারকে চিঠি দেয়া হয়েছে।

জন দুর্ভোগের কথা বিচার করে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ব্রীজটি নির্মানের দাবী জানিয়েছেন ভুক্তভোগী এলাকাবাসী।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com