বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০৫:৩৫ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
সাংবাদিক পীর হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদে রংপুরে মানববন্ধন রাজনীতি আমার পেশা নয় আমার নেশা আলহাজ্ব এম.এ ওয়াহেদ ময়মনসিংহের ভালুকায় বিশ্ব হাতধোয়া দিবস উপলক্ষে র‌্যালী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত সূর্যসেন হলে কোনো ‘টর্চার সেল’ নেইঃ হল সংসদ জাপান ভয়াবহ তাইফুন এর সম্মুখীন হাটহাজারী উপজেলা চেয়ারম্যান গোল্ডকাপ ফুটবলের প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত  শিশুর কান-লিঙ্গ কেটে নৃশংসভাবে হত্যা ময়মনসিংহ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বিরুদ্ধে ৭ ইউপি সদস্যের অভিযোগ ময়মনসিংহের ভালুকায় আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন ও বাল্য বিবাহ নিরোধ দিবস পালিত ময়মনসিংহের ভালুকায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে জাতীয় শ্রমিকলীগের ৫০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত
‘প্রথমে আমি বুঝতে পারিনি’, এরপর…

‘প্রথমে আমি বুঝতে পারিনি’, এরপর…

ফরাসি এক ছাত্রী যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছেন ভারতের রাজধানী দিল্লিতে এসে। ওই ছাত্রীর অভিযোগ, তিনি যে ছাত্রীর বাসায় থাকার জন্য উঠেছিলেন, তার বাবা-ই তাকে যৌন হেনস্থা করেছেন বলে জানান।

ওই ছাত্রী ফ্রান্স থেকে স্টুডেন্ট এক্সেচেঞ্জ প্রোগ্রামে এসেছিল দিল্লিতে। জঘন্য এ ঘটনা জানার পর ছাত্রীটির বাবা-মা স্তম্ভিত। কেননা, অনেক ভরসা করে তারাই ভারতে মেয়েকে পাঠিয়েছিলেন অভিযুক্ত ওই পরিবারটির কাছে।

ভারতীয় একটি গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, ১৬ বছর বয়সী ওই ছাত্রীর অভিযোগ, গত ১৮ অক্টোবর এ ঘটনাটি ঘটেছে। অভিযুক্ত ৫৫ বছরের ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে গত সপ্তাহেই থানায় শিশু যৌন নির্যাতন আইনে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশ জানায়, ভারত ও ফ্রান্সের ছাত্রী বিনিময় কর্মসূচিতে অংশ নিতে গত ১৩ অক্টোবর ভারতে আসেন ওই ছাত্রী। এরপর থাকার জন্য দক্ষিণ দিল্লির সাকেত এলাকায় এক ছাত্রীর বাড়িতে উঠেছিলেন তিনি।

ফ্রান্সের ওই ছাত্রীর অভিযোগ, ‘সে দিন জয়পুরে যাওয়ার জন্য আমি তৈরি হচ্ছিলাম। আমার ঘরেই ছিলাম। ওই ছাত্রীর বাবা কিছু পরামর্শ দেয়ার জন্য আমার ঘরে আসেন। তখনও আমি জিনিসপত্র গোছগাছ করছিলাম।… তিনি আমার সামনে এসে দাঁড়ান।’

তিনি আরও বলেন, ‘আংকেল খুবই কাছে চলে আসেন আমার। আমাকে জড়িয়ে ধরে বলেন, চিন্তা কর না। সব ঠিক হবে।… প্রথমে আমি বিষয়টি বুঝতে পারিনি। এরপর টের পাই তিনি আমার বুক স্পর্শের চেষ্টা করছেন। জড়িয়ে ধরছেন আর বলছেন, চিন্তার কর না।… বিষয়টি আমার কাছে খুবই অস্বস্তিকর এবং কষ্টদায়ক ছিল।’

ছাত্রীর অভিযোগ, ‘এখানেই শেষ না। তিনি আমার হাত জোর করে উনার দু’পায়ের ফাঁকে ঢুকিয়ে দেন।…’

জয়পুর যাওয়ার পথে ওই ছাত্রী পুরো বিষয়টি তার বন্ধুকে জানান। এ সময় কান্নায় ভেঙে পড়েন তিনি।

এরপরই পুরো ঘটনাটি জানানো হয় যে স্কুলের তরফ থেকে তাদের আনা হয়েছিল, সেই স্কুলের শিক্ষককে।

এ ঘটনার পর ওই ছাত্রীর পরিবার এবং ফরাসি দূতাবাসের যোগাযোগ করা হয়। পরে ছাত্রীকে বাড়ি ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করা হয়।

দিল্লি পুলিশ ইতোমধ্যে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com