বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ০৭:৩৬ অপরাহ্ন

গণজোয়ার শুধু কাদেরের মুখে : রিজভী

গণজোয়ার শুধু কাদেরের মুখে : রিজভী

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন, ‘গণজোয়ারের যে কথা বলছেন কাদের, সে জোয়ার আর নদী আর সমুদ্রের মোহনায় নেই, সে জোয়ার এখন ওবায়দুল কাদেরের মুখেই চলে এসেছে। আর আসলে যেখানে যে জোয়ার থাকার কথা সেখানে শূন্য বালুচর।’

শুক্রবার (২৮ ডিসেম্বর) দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি। ‘স্বাধীনতার পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে’- আজ সকালে ওবায়দুল কাদেরের এমন মন্তব্যের প্রেক্ষিতে একথা বলেন রিজভী।

এ সময় তিনি বলেন, ‘অবৈধ সরকারের প্রধানমন্ত্রী আবারও বলেছেন-পরাজয় বুঝতে পেরে নাশকতার পরিকল্পনায় বিএনপি। সর্বজনবিদিত যে, আওয়ামী লীগ এমন দল যেটি একটি উন্নতমানের মিথ্যা প্রডাকশন কেন্দ্র।’

প্রধানমন্ত্রীর কাছে প্রশ্ন রেখে রিজভী বলেন, ‘বিএনপি মহাসচিবের গাড়িবহরে হামলা করেছে কে? গয়েশ্বরকে আঘাত করে রক্তাক্ত করেছে কে? ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনকে গুলি করেছে কে? মির্জা আব্বাস-আফরোজা আব্বাস, ড. মঈন খান, মওদুদ আহমদ, মেজর হাফিজের মিছিলে হামলা করেছে কে? এ্যানীর ওপর হামলা চালিয়েছে কে? যারা এসব সহিংস অপকর্মে লিপ্ত তাদেরকে কি শান্তির বার্তাবাহক বলতে হবে?’

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, ‘সারাদেশে প্রার্থীদের পুলিশ দিয়ে অবরুদ্ধ করে রাখা কি শান্তি মিশনের কাজ, নাকি সেটিকে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস বলে, তা আপনার কাছ থেকে জানতে চায় জাতি।’

বিএনপির এই সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও আওয়ামী ক্যাডারদের গুন্ডামিতে গতকাল (বৃহস্পতিবার) দেশের বিভিন্ন স্থানে ধানের শীষের প্রার্থীদের মিছিলে বাধা দেওয়া হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এবং আওয়ামী সন্ত্রাসীরা বিএনপির নির্বাচনি এজেন্ট, কর্মী ও সমর্থকদের এলাকাছাড়া করেছে। আওয়ামী সন্ত্রাসীদের গ্রামে-গ্রামে সশস্ত্র মহড়া চলছে। সারাদেশে এখনও ভীতিকর অবস্থা বিদ্যমান।’

সেনাবাহিনী প্রসঙ্গে বিএনপির নেতা বলেন, ‘সেনাবাহিনীকে মাঠে নামিয়ে হাত-পা বেঁধে রেখেছেন সিইসি। তাদেরকে স্বাধীনভাবে কাজ করতে দেওয়া হচ্ছে না। এগুলো সবই হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ইশারায় এবং সিইসি’র তত্ত্বাবধানে।’

রিজভী অভিযোগ করে বলেন, ‘জেলায় জেলায় বেপরোয়া গ্রেফতার অভিযানে বিএনপির নেতাকর্মীদের বাড়িছাড়া করা হচ্ছে। আর আপনি বলছেন-বিএনপি নাশকতা করছে। নাশকতাকারিদের ট্রেনিং সেন্টার তো আওয়ামী লীগেই বিদ্যমান। সন্ত্রাসের অভয়ারণ্য আওয়ামী লীগ ও সরকার।’

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদকের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় হাজার হাজার কোটি টাকা ব্যাংক থেকে লোপাট হলো, সেগুলোর দায় কি প্রধানমন্ত্রী এড়াতে পারবেন। অবশ্য আপনি প্রধানমন্ত্রীকে সৎ উপাধী দিয়ে আপনার পদের নিশ্চয়তা থাকবে ঠিকই, কিন্তু এরকম কথা বলে আপনি জাতির কাছে হাস্যকর পাত্রে পরিণত হয়েছেন।’

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com