শুক্রবার, ১৬ অগাস্ট ২০১৯, ০৩:০৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
কালীগঞ্জে বাল্য বিয়ের দায়ে জরিমানা ময়মনসিংহের ভালুকায় যথাযোগ্য মর্যাদায় পালিত হলো জাতীয় শোক দিবস ভালুকায় যুবলীগ নেতার বাসাবাড়িতে অগ্নিকান্ডে ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়েছে ময়মনসিংহের ভালুকায় ডাকাতিয়া ইউনিয়ন অর্নাস এসোসিয়েশন আয়োজিত ঈদ পুনর্মিলনী ও সংবর্ধনা ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন ভেলাগুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মহির উদ্দিন সরকারের পাশাপাশি যুব সমাজকে ডেঙ্গু প্রতিরোধে এগিয়ে আসতে হবে- কাজিম উদ্দিন আহম্মেদ ধনু এমপি ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এ্যাডভোকেট আঞ্জুমানআরা শাপলা ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ওসি মোস্তাফিজার রহমান ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবু সাঈদ ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন চন্দ্রপুর ইউনিয়নের কাজী শরিফুল
প্রতিবন্ধীরা সমাজের বোঝা নয়, তাদের মধ্যে সুপ্ত প্রতিভা আছে

প্রতিবন্ধীরা সমাজের বোঝা নয়, তাদের মধ্যে সুপ্ত প্রতিভা আছে

অটিজম আক্রান্তরা সমাজের বোঝা নয়, তাদের মধ্যেও সুপ্ত প্রতিভা আছে, সেই প্রতিভা বিকাশে সরকার নানা পদক্ষেপ নিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বিশ্ব অটিজম দিবসের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন। এ সময় তিনি সহানুভূতি নিয়ে প্রতিবন্ধীদের কর্মসংস্থানের জন্য সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

অটিজমে আক্রান্তদের সহায়তার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা একটা সার্ভে করেছি। এই সার্ভেতে আমরা প্রথমে পেয়েছিলাম ১০ লাখ প্রতিবন্ধী আমাদের দেশে আছে। আমরা তাদের প্রত্যেককে প্রতি মাসে ৭০০ টাকা করে ভাতা দিচ্ছি। এবারের সেনসাস রিপোর্টে এসেছে, প্রায় ১৪ লাখ প্রতিবন্ধী আছে। আগামী যে বাজেট আসছে, সবার জন্য ভাতার ব্যবস্থা করে দেবো।’

প্রতিবন্ধীদের পড়াশোনায় সরকারের উদ্যোগ ও তাদের খেলাধুলায় সরকারি পদক্ষেপের কথাও উল্লেখ করেন সরকারপ্রধান। তিনি বলেন, ‘আমরা সব শিক্ষার্থীকে উপবৃত্তি, ভাতা দিই। কিন্তু প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্য আমরা সেটা বেশি দিই। যাতে তারা তাদের পড়াশোনাটা ঠিকমতো করতে পারে।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিবন্ধীদের জন্য খেলার মাঠ, ইনডোর স্টেডিয়াম, পরিচর্যা কেন্দ্র গড়ে তোলার কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘বিভাগীয় পর্যায়ে ছেলেমেয়েদের জন্য পরিচর্যা কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। যখন সম্ভব হবে, সেটা আমরা জেলা পর্যায়েই করে দেবো।’

‘অনেক বাবা-মা আছেন, যাঁদের সন্তান অটিজম আক্রান্ত। তাঁদের একটা দুশ্চিন্তা থাকে, তাঁরা না থাকলে এই বাচ্চাদের কে দেখবে? যাদের ভাইবোন আছে তারা দেখে, আত্মীয়স্বজন দেখে। কিন্তু সবক্ষেত্রেই তো তা হয় না। মা-বাবার এই দুশ্চিন্তাটা দূর করতেই আমরা এই ব্যবস্থাটা নিচ্ছি।’

এ সময় প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, প্রতিটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে অটিজম শনাক্ত ও পরিচর্যার জন্য কেন্দ্র থাকবে। তাদের মধ্যে সুপ্ত প্রতিভা আছে, সেটার সুযোগ করে দিতে হবে।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com