বুধবার, ১৪ অগাস্ট ২০১৯, ১১:২৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ময়মনসিংহের ভালুকায় ডাকাতিয়া ইউনিয়ন অর্নাস এসোসিয়েশন আয়োজিত ঈদ পুনর্মিলনী ও সংবর্ধনা ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন ভেলাগুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মহির উদ্দিন সরকারের পাশাপাশি যুব সমাজকে ডেঙ্গু প্রতিরোধে এগিয়ে আসতে হবে- কাজিম উদ্দিন আহম্মেদ ধনু এমপি ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এ্যাডভোকেট আঞ্জুমানআরা শাপলা ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ওসি মোস্তাফিজার রহমান ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবু সাঈদ ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন চন্দ্রপুর ইউনিয়নের কাজী শরিফুল ইউএনও রবিউল হাসানের ঈদ শুভেচ্ছা ময়মনসিংহের ভালুকায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুেন্নছা মজিব এর ৮৯ তম জন্মবাষিকী উপলক্ষে উঠান বৈঠক ঢাকায় যুবরাজ, দাম ৩০ লাখ!
ফুলের মতোই সুন্দর পুত্রা মসজিদ

ফুলের মতোই সুন্দর পুত্রা মসজিদ

ফুলের মতোই সুন্দর মালয়েশিয়ার পুত্রাজায়ায় অবস্থিত পুত্রা মসজিদ। ভেতর বাইরে সর্বত্র অপরূপ সৌন্দর্যমণ্ডিত এ মসজিদ মুগ্ধ করবে যে কাউকে। মসজিদের একটি দু’টি ছবি দেখে এর সৌন্দর্য রহস্য বোঝার উপায় নেই। কুয়ালালামপুরের পুত্রাজায়া যেমন পটে আঁকা ছবির মতো সাজানো আর সুন্দর তেমন সুন্দর এ মসজিদ। তাই পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর মসজিদের তালিকায় অনায়াসে উপরের দিকে স্থান পায় এ মসজিদের নাম।

নির্মাণগত দিক দিয়ে মসজিদটি যেমন সুন্দর তেমনি একে আলাদা সৌন্দর্য দান করেছে এর অবস্থানগত কারণ। মসজিদটি পুত্রাজায়া লেকের মধ্যে অবস্থিত। প্রবেশপ্রান্ত স্থলভাগের সাথে যুক্ত। মসজিদটির কয়েক গজ দূরে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন পারাদানা পুত্রা। স্বাভাবিকভাবেই এর চারদিকে অপুরূপ শোভামণ্ডিত। মসজিদের সামনে বিশাল গোলচত্বরটিও পুত্রাজায়া লেকবেষ্টিত। লেকটি মানবসৃষ্ট।

পুত্রাজায়ার প্রধান মসজিদ পুত্রা মসজিদ। মসজিদের গম্বুজ হালকা লাল রঙের। হালকা গোলাপী গ্রানাইট পাথর দিয়ে নির্মিত এ গম্বুজ। হালকা লাল গম্বুজ, হালকা গোলাপী রঙের গ্রাইনাইট পাথর আর সুন্দর কারুকাজ মসজিদটিকে করেছে দৃষ্টিনন্দন। মসজিদটি নির্মাণ শুরু ১৯৯৭ সালে। দুই বছরের মাথায় নির্মাণ সম্পন্ন হয়। একসাথে ১৫ হাজার মুসল্লি সালাত আদায় করতে পারেন এখানে। সালাতের স্থান, শাহান এবং পড়ার রুম এ তিন মিলে মসজিদটি। নামাজের স্থানে রয়েছে মোট ১২টি বিশালাকায় খুঁটি।

এর মাঝখানে প্রধান গম্বুজ। মসজিদের গম্বুজ ২৫০ ফিট উঁচু। গম্বুজের ব্যাসার্ধ ১১৮ ফুট। মসজিদের বিভিন্ন রুমে কনফারেন্স, সিম্পোজিয়াম ও সেমিনার আয়োজনের ব্যবস্থা রয়েছে। মুসল্লিরা শাহানে জড়ো হয়ে বসতে পারেন। একসাথে পাঁচ হাজার লোক বসতে পারেন শাহানের ওপর। ৩৮০ ফুট উঁচু মিনারটি বাগদাদের শেখ ওমর মসজিদের আদলে নির্মিত। পৃথিবীর অন্যতম আধুনিক মসজিদ গণ্য করা হয় পুত্রা মসজিদকে। মসজিদের সামনে সুসজ্জিত ফুলের বাগান, বৃক্ষরাজি সহজেই মুগ্ধ করে দর্শকদের।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com