বৃহস্পতিবার, ১৫ অগাস্ট ২০১৯, ০৩:৫৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ময়মনসিংহের ভালুকায় ডাকাতিয়া ইউনিয়ন অর্নাস এসোসিয়েশন আয়োজিত ঈদ পুনর্মিলনী ও সংবর্ধনা ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন ভেলাগুড়ী ইউপি চেয়ারম্যান মহির উদ্দিন সরকারের পাশাপাশি যুব সমাজকে ডেঙ্গু প্রতিরোধে এগিয়ে আসতে হবে- কাজিম উদ্দিন আহম্মেদ ধনু এমপি ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন এ্যাডভোকেট আঞ্জুমানআরা শাপলা ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ওসি মোস্তাফিজার রহমান ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবু সাঈদ ঈদের শুভেচ্ছা জানালেন চন্দ্রপুর ইউনিয়নের কাজী শরিফুল ইউএনও রবিউল হাসানের ঈদ শুভেচ্ছা ময়মনসিংহের ভালুকায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুেন্নছা মজিব এর ৮৯ তম জন্মবাষিকী উপলক্ষে উঠান বৈঠক ঢাকায় যুবরাজ, দাম ৩০ লাখ!
সুয়ারেজের পাশে তৈরি মিষ্টিতে সাঁতরে বেড়াচ্ছে তেলাপোকা!

সুয়ারেজের পাশে তৈরি মিষ্টিতে সাঁতরে বেড়াচ্ছে তেলাপোকা!

নিজস্ব প্রতিবেদক : একের পর এক অভিযান, প্রতিষ্ঠান সিলগালা কিংবা জেল জরিমানা কোনো কিছুতেই ঠেকানো যাচ্ছে না নকল ও ভেজাল পণ্য উৎপাদন এবং বিক্রি। সরকারি সংস্থাগুলো বলছে, ভেজালের বিরুদ্ধে দীর্ঘমেয়াদী সমাধান পেতে পরিকল্পিত সমন্বিত উদ্যোগে মাঠে নামতে হবে একযোগে। অন্যদিকে ক্ষতিকর কেমিকেল আমদানি ও বাজারজাতে নজরদারির পাশাপাশি পণ্যের উৎপাদন থেকে ভোক্তা পর্যায়ে সচেতনতা বাড়ানোর তাগিদ বিশেষজ্ঞদের।

মিষ্টিতে সাঁতরে বেড়াচ্ছে তেলপোকা, কোথাও লুকোচুরি খেলেছে খাবারের মধ্যে। খাবার লোভনীয় কিন্তু তৈরি হচ্ছে সুয়ারেজ লাইনের পাশে।

এত গেল নোংরা আর অপরিচ্ছন্ন পরিবেশের দিক। এর বাইরে হচ্ছে প্রতারণা, কোমল পানীয় তৈরিতে মিশিয়ে দেয়া হচ্ছে কাপড়ের রং কিংবা হলুদের গুড়া। মেয়াদ শেষ হওয়া পণ্যের গায়ে নতুন লেভেল লাগিয়ে ছাড়া হচ্ছে বাজারে। ভরসার জায়গা নামি দামি প্রতিষ্ঠানের পণ্যেও মিলেছে গলদ। দিনের পর দিন এমন অভিযোগের পরও মুক্তি মিলছে না। যেন অপ্রতিরোধ্য ভেজালকারীরা।

অভিযান আটক, জরিমানা করে সাময়িক সুফল মিললেও দীর্ঘমেয়াদে সমাধান পেতে সংশ্লিষ্ট সব প্রতিষ্ঠানকে একযোগে কাজ করতে হবে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সদস্য মাহবুব কবির মিলন বলেন, বন্দরে চেক দিতে না পারি, অবাধ যদি ঢোকে তাহলে এখানে জরিমানা করে তো কোনো লাভ হবে না। আন্তর্জাতিক মান ও সবার সঙ্গে যোগাযোগ করে আমরা সেদিকেই যাচ্ছি।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর উপপরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, উৎপাদনকারী যদি ঠিক হয়ে যান তাহলে যেখানে খুচরা দোকানদার সেখানে সমস্যা হওয়ার কথা না।’

একের পর এক অভিযান কিংবা কিছু পণ্যের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হলেও এতে আত্মতৃপ্তির সুযোগ নেই বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা।

ভোক্তা অধিকার নিয়ে কাজ করা বেসরকারি সংস্থা ‘কনসাস কনজুমার্স সোসাইটি’ (সিসিএস) এর নির্বাহী পরিচালক পলাশ মাহমুদ বলেন, মাত্র ৩০০ পণ্য পরীক্ষা করলো, সেখানে ৫২টা পণ্য নিম্নমানের। বাজারে তো হাজার হাজার প্রোডাক্ট আছে। এক জায়গায় শুধু ওষুধ দিয়েই সর্বাঙ্গ ভালো হয়ে যাবে না।’

এছাড়াও তারা বলছেন, অগ্রাধিকার দেয়া উচিত সর্বস্তরে সচেতনতায়।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com