বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ০৬:৪৬ পূর্বাহ্ন

‘বাবা-মা বিয়েতে রাজি, বাড়ি আসো’, গিয়ে হলেন গণধর্ষণ

‘বাবা-মা বিয়েতে রাজি, বাড়ি আসো’, গিয়ে হলেন গণধর্ষণ

কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলায় প্রেমের ফাঁদে ফেলে এক তৈরি পোশাককর্মীকে (২০) গণধর্ষণের অভিযোগে দুই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশের দাবি, এ সময় গোলাগুলিতে তাঁরা আহত হয়েছেন।

গতকাল রোববার বিকেল ৩টার দিকে উপজেলার বলদাখাল স্লুইস গেইট এলাকা থেকে ওই দুই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁরা হলেন- গোলাম রাব্বি ও রাব্বি আহাম্মদ। তাঁরা নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে দায়ের করা মামলার আসামি। তাদের কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

দাউদকান্দি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম দা্বি করেন, গোলাগুলির সময় দুইজন সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ও দুইজন কনস্টেবল আহত হয়েছেন।

পুলিশ জানায়, গত শনিবার চট্টগ্রামের এক তৈরি পোশাককর্মী কয়েকজনকে আসামি করে এই মামলাটি দায়ের করেন। মামলার আসামিদের মধ্যে রয়েছে- কুমিল্লার দাউদকান্দির মালিখিল গ্রামের গোলাম রাব্বী, রাব্বি আহাম্মদ, আল-আমিন। এই তিনজনকেই গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, প্রায় এক বছর আগে চট্টগ্রামের ওই তৈরি পোশাককর্মীর সঙ্গে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে পরিচয় হয় দাউদকান্দির গোলাম রাব্বির। মেয়েটি চট্টগ্রামের পদ্মা গার্মেন্টে কাজ করেন। ধীরে ধীরে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

গত শুক্রবার বিকেলে গোলাম রাব্বি মেয়েটিকে জানায়, তাঁর বাবা-মা বিয়েতে রাজি হয়েছেন এবং মেয়েকে দেখতে চান। মেয়েটি যেন দ্রুতই দাউদকান্দিতে তাদের বাড়ি চলে আসে। মেয়েটি বিকেল ৪টায় চট্টগ্রাম থেকে একটি বাসে কুমিল্লার পথে রওনা দেয়। রাত ১২টার দিকে দাউদকান্দি পৌঁছে।

গোলাম রাব্বি, আল-আমিন ও রাব্বি আহাম্মদ একটি সিএনজিচালিত অটোরিকশায় করে মেয়েটিকে নিয়ে দাউদকান্দির ইলিয়টগঞ্জ দক্ষিণ ইউনিয়নের মালিখিল এলাকার একটি মৎস্য খামারে চলে যায়। একপর্যায়ে মেয়েটি তিনজনের মতলব বুঝে চিৎকার শুরু করেন। তখন ওড়না দিয়ে তার মুখে বেঁধে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হয় এবং গণধর্ষণ করা হয়। রাত ৪টা পর্যন্ত নির্যাতনের শিকার হন বলে মেয়েটি মামলায় উল্লেখ করেছেন।

ভোরে মেয়েটিকে খামারে একা ফেলে তিনজন চলে যান। তারপর মেয়েটি অন্যদের সহায়তায় থানায় গিয়ে অভিযোগ দেন। অভিযোগ পাওয়ার পরই পুলিশ অভিযান চালিয়ে প্রথমে মালিখিল গ্রাম থেকে আল-আমিনকে গ্রেপ্তার করে।

পরে তাঁর দেওয়া তথ্য অনুসারে, বাকি আসামিদের ধরতে বলদাখাল স্লুইস গেইট এলাকায় অভিযান চালানো হয় বলে জানায় পুলিশ। তখনি ‘গোলাগুলিতে’ গোলাম রাব্বি ও রাব্বি আহাম্মাদ গুলিবিদ্ধ হন।

এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি পাইপগান, তিনটি গুলি, একটি রামদা, একটি চাকু ও একটি ছোরা উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানানো হয়।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com