বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
পানি শুকিয়ে বেরোল তিন হাজার বছরেরও পুরোনো প্রাসাদ!

পানি শুকিয়ে বেরোল তিন হাজার বছরেরও পুরোনো প্রাসাদ!

খরার কারণে পানির স্তর কমে যাওয়ায় দৃশ্যমান হলো প্রায় সাড়ে তিন হাজার বছরের পুরোনো এক প্রাসাদ। ইরাকের কুর্দিস্তান অঞ্চলে টাইগ্রিস নদীর তীরে দেওয়া মসুল বাঁধের একপাশে শুকিয়ে যাওয়া একটি এলাকা থেকে জেগে উঠেছে এই প্রাসাদ।

মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, একদল কুর্দিশ-জার্মান গবেষক ওই এলাকায় খননকাজ পরিচালনা করছেন। ধারণা করা হচ্ছে, দৃশ্যমান হওয়া তিন হাজার ৪০০ বছরের পুরোনো প্রাসাদটি প্রাচীন প্রাচ্যের মিত্তানি সাম্রাজ্যের একটি নিদর্শন। মিত্তানি সভ্যতা নিয়ে খুব বেশি গবেষণা হয়নি।

ইট দিয়ে তৈরি এই প্রাসাদটির উচ্চতা ৬৫ ফুট। প্রাসাদের দেয়াল দুই মিটার (৬ দশমিক ৬ ফুট) পর্যন্ত পুরু। প্রাসাদে অনেকগুলো কক্ষ রয়েছে।

প্রাসাদের দেয়ালে লাল ও নীল রঙে আঁকা বিভিন্ন চিত্রকর্মের নিদর্শন মিলেছে বলে জানা গেছে।

প্রাসাদের ভেতর পাওয়া গেছে মাটি দিয়ে তৈরি টেবিল। এসব টেবিলের গায়ে প্রাচীন কোনো ভাষায় লেখা দেখা গেছে। এই লেখার অর্থ জানতে এসব টেবিলের ছবি তুলে জার্মানিতে পাঠানো হয়েছে।

এই টেবিলগুলোর গায়ে ‘কিউনিফর্ম’ (প্রাচীন একটি লেখার ধরন) পদ্ধতি ব্যবহার করা লেখা হয়েছে।

এসব লেখার পাঠোদ্ধার করা গেলে মিত্তানি সাম্রাজ্যের রাজধানীর সঙ্গে প্রতিবেশী অঞ্চলগুলোর সম্পর্ক কেমন ছিল, সে সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যাবে বলে মনে করছেন গবেষকরা।

পুরাতত্ত্ববিদরা এই এলাকার হদিস পান ২০১০ সালে। পানির স্তর নিচে নামায় সেখানে খননকাজ শুরু করা হলেও পরে আবার পানি ওঠায় তা বন্ধ হয়ে যায়।

প্রাসাদের এই ধ্বংসাবশেষ পাওয়ায় মিত্তানি সভ্যতার নতুন কোনো রহস্যের দ্বার উন্মোচিত হবে কি না, তা সময়ই বলে দেবে।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com