বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০৯:১১ অপরাহ্ন

ফ্রায়েড চিকেন আর চকলেট খেয়েই এমন সাফল্য স্টোকসের!

ফ্রায়েড চিকেন আর চকলেট খেয়েই এমন সাফল্য স্টোকসের!

ইতিহাস গড়া অবিশ্বাস্য ১৩৫ রানের ইনিংস খেলে ইংল্যান্ডকে অবিস্মরণীয় জয় উপহার দেয়ার পর বেন স্টোকসকে নিয়ে চলছে তুমুল আলোচনা। কিভাবে তিনি পারলেন এমন কঠিন পরিস্থিতিতে এতটা ধৈর্য্য ধরে দলকে জয় উপহার দিতে। কি দিয়ে এমন মানসিক শক্তি তৈরি করেছেন তিনি। স্টোকস কি খান, যা অন্যদের চেয়ে আলাদা?

হ্যাঁ, এর উত্তর আছে। স্টোকসের খাবার মেন্যুতে যা আছে, তা সত্যিই অন্যদের চেয়ে আলাদা। এক কথায় সেই মেন্যু হচ্ছে, ফ্রায়েড চিকেন এবং চকোলেট বার!

২১৯ বল খেলে ১৩৫ রানের অপরাজিত ইনিংস। ২৮৬ রানে যখন ৯ম উইকেটের পতন হয়, তখন স্টোকস ছিলেন ৬১ রানে অপরাজিত। এরপর জ্যাক লিচকে নিয়ে ইংল্যান্ডকে জয় এনে দিলেন তিনি। টেস্ট ক্রিকেটের ১৪২ বছরের ইতিহাসে একে মনে করা হচ্ছে, অন্যতম সেরা ইনিংস হিসেবে।

কয়েক দিন ধরে ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং করার পর একজন ক্রিকেটারের খাদ্যতালিকায় প্রোটিন শেক বা হাইড্রেশন ট্যাবলেট থাকাই স্বাভাবিক; কিন্তু স্টোকস যে আর পাঁচজন ক্রিকেটারের মত নন। ফলে তার খাদ্যতালিকা বাকিদের সঙ্গে মিলবে কিভাবে?

হেডিংলিতে ১৩৫ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলে ইংল্যান্ডকে অবিশ্বাস্য জয় এনে দেওয়ার পর স্টোকসকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, ‘কাল রাতে কী খেয়ে শুতে গিয়েছিলেন?’ স্টোকসের জবাব, ‘নান্দোজের ফ্রায়েড চিকেন এবং গোটা দুই চকোলেট বার।’

ভরা পেট নিয়ে রাতে শুতে যাওয়ার সময় স্টোকস জানতেন, ইংল্যান্ডের কাজটা মোটেও সহজ হবে না। তখনও ২০৩ রান বাকি, হাতে সাত উইকেট। পরের দিন সকালে অবশ্য কিছু খাননি স্টোকস। দু’কাপ কফি খেয়েই অ্যাশেজ জয়ের লক্ষ্যে ম্যাঠে নেমে পড়েন।

কিন্তু দিন যত এগুলো, কাজটা ক্রমশ কঠিন হতে থাকে। স্টোকস একটা দিক ধরে থাকলেও উল্টো দিক থেকে উইকেট পড়তে থাকে। যখন ৯ নম্বর উইকেট পড়ে যায়, তখনও জিততে ইংল্যান্ডের প্রয়োজন ছিল ৭০ রানের বেশি। এরপরে শুরু হয়ে যায় স্টোকসের একার হাতের তাণ্ডব এবং সংগ্রামী ইনিংস। শেষ উইকেটে যে ৭৬ রান যোগ হয়, তার মধ্যে দশ নম্বরে নামা জ্যাক লিচের রান ছিল মাত্র ১!

কিভাবে প্রস্তুতি নিয়েছিলেন চূড়ান্ত লড়াইয়ের জন্য? স্বাভাবিক ভাবেই সংবাদ সম্মেলনে প্রশ্ন উঠেছিল। স্টোকস জবাব দিলেন, ‘আমার স্ত্রী এবং বাচ্চারা দশটা নাগাদ এসেছিল। আমার স্ত্রীর হাতে একটা পাস্তার প্লেট ছিল।’

স্ত্রী কি আপনার জন্য কিছু এনেছিলেন? একটু ভেবে স্টোকসের জবাব, ‘ফ্রায়েড চিকেন আর গোটা দুয়েক চকোলেট বার।’ তাহলে এই খাবারই আপনাকে ও রকম একটা ইনিংস খেলার রসদ জুগিয়েছে? মাথা নাড়িয়ে স্টোকস বলে ওঠেন, ‘সঙ্গে সকালে দু’কাপ কফিও ছিল।’

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com