রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ১১:৩৩ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
ময়মনসিংহের ভালুকা পৌর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী সাংবাদিক- জামাল ৬৫ হাজার টাকা ঘুষ নিয়ে ১০ জেলেকে ছেড়ে দিলেন এএসআই! ময়মনসিংহের ভালুকায় গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে ইউপি সদস্যকে গণধোলাই পুলিশে শোপর্দ ৩৬ তম বিসিএস পুলিশ ব্যাচের সভাপতি ইমরুল, সা.সম্পাদক রাকিব সাংবাদিক পীর হাবিবুর রহমানের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদে রংপুরে মানববন্ধন রাজনীতি আমার পেশা নয় আমার নেশা আলহাজ্ব এম.এ ওয়াহেদ ময়মনসিংহের ভালুকায় বিশ্ব হাতধোয়া দিবস উপলক্ষে র‌্যালী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত সূর্যসেন হলে কোনো ‘টর্চার সেল’ নেইঃ হল সংসদ জাপান ভয়াবহ তাইফুন এর সম্মুখীন হাটহাজারী উপজেলা চেয়ারম্যান গোল্ডকাপ ফুটবলের প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত 
হাটহাজারীতে বিভিন্ন দাবীতে পৌরবাসির মানববন্ধন : পৌর ইঞ্জি.সহ ৩ কর্মচারীর অপসারন দাবী ! 

হাটহাজারীতে বিভিন্ন দাবীতে পৌরবাসির মানববন্ধন : পৌর ইঞ্জি.সহ ৩ কর্মচারীর অপসারন দাবী ! 

মো.আলাউদ্দীন,হাটহাজারীঃ
হাটহাজারীতে বিভিন্ন দাবীতে পৌরসভার সুবিধাবঞ্চিত সর্বস্থরের জনগণ মানববন্ধন ও সমাবেশ করেছে। সমাবেশে পৌরসভার ইঞ্জিনিয়ার বেলাল, সচিব বিপ্লব চন্দ্র মুহুরি, সহকারী সচিব শিহাব উদ্দীন ও লাইনম্যান মনোয়ার হোসেনসহ আমলা-সিন্ডিকেটদের অপসারণ ও অনিয়ম দুর্নীতির প্রতিবাদ জানিয়ে সাতদিনের মধ্যে তাদের অপসারন দাবী করা হয়েছে।
বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) সকাল দশটা  দিকেে পৌরসভার ডাকবাংলো চত্তরে এ মানববন্ধন ও সমবেশ অনুষ্ঠিত হয়।
হাটহাজারী পৌরসভায় অস্বাভাবিক ভাবে কর বৃদ্ধি, জন্মনিবন্ধন, ওয়ারিশ সনদ ইত্যাদি প্রদানে চরম নাগরিক হয়রানি, নুরানী মাদ্রাসা ও হিফযখানার প্রত্যায়নপত্র গ্রহন না করার প্রতিবাদে এবং ২০১৯ সালের করা “কর এসেসম্যান্ট” বাতিল ও নির্বাচিত জনপ্রতিনিধির দাবীতে  হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ হাটহাজারী পৌরসভার সভাপতি মাওলানা মীর ইদ্রিসের সভাপতিত্বে পৌরসভার সহায়ক কমিটির সদস্য এম.এ. শুক্কুরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধন পরবর্তী সমাবেশে বক্তারা যথাযত কর্তৃপক্ষের কাছে মোট ১৩ টি দাবী জানান। দাবীগুলো হলো –
১। ২০১৯ সালের এসেনম্যান্টে ৫০-১০০ গুণ পর্যন্ত যেই হোল্ডিং টেক্স বৃদ্ধি করা হয়েছে, তা বাতিল করতে হবে। ২। জন্মনিবন্ধন সনদের আবেদন ফরমে সহায়ক কমিটির সদস্য কর্তৃক যাচাই-বাছাইয়ের পর সুপারিশ করলে সনদপত্র প্রদান করতে হবে। ২০/- টাকা দিয়ে ফরম নেওয়ার পর সনদের বাড়তি ৫০/- টাকা মওকুফ করতে হবে। ৩। ট্রেড লাইসেন্সে বিবিধের নামে ২০০-১০০০ টাকা নেওয়া নতুন খাতটি বাতির করতে হবে। উক্ত খাতটি অত্র পৌরসভায় ইতিপূর্বে ছিলো না এবং অন্যান্য পৌরসভায়ও নেই। ৪। জন্মনিবন্ধনের জন্য সকল মাদরাসা কর্তৃক প্রদত্ত প্রত্যয়নপত্র গ্রহণ করতে হবে। ৫। যেসকল নাগরিক প্রাতিষ্ঠানিক লেখাপড়া করেনি, তাদেরকে টিকার কার্ড অথবা ডাক্তারের সুপারিশে জন্মনিবন্ধন সনদপত্র দিতে হবে। ৬। সাবেক ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক প্রদত্ত যেসকর জন্মনিবন্ধন এখনো অনলাইন করা হয়নি, সেগুলি বিনা খরচে অনলাইন করে দিতে হবে। ৭। ওয়ারিশ সনদপত্র যাচাই-বাছাই করে সহায়ক কমিটির কোন সদস্য সুপারিশ করলে দ্রুত ওয়ারিশ সনদপত্র প্রদান করতে হবে। ৮। পৌর এলাকার ভোটারদের মধ্যে যারা স্থায়ী বাসিন্দা, তাদেরকে সর্বোচ্চ ২দিনের মধ্যে জাতীয় সনদপত্র প্রদান করতে হবে। ৯। পৌরসভার প্রতিটি কার্যক্রম সহায়ক কমিটির সদস্যদের মতামতের ভিত্তিতে পরিচালনা করতে হবে। ১০। পৌরসভার যেসকল কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ সেবা প্রদানে বিনা রসিদে টাকা গ্রহণ করে, তদন্তপূর্বক তাদের শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।  ১১। টেন্ডারবিহীন যত কাজ আছে, সকল কাজ নিজ নিজ এলাকার সহায়ক কমিটির সদস্যদের মাধ্যমে কার্যকর করতে হবে। ১২। পৌর ইঞ্জিনিয়ার বিল্ডিংয়ের নক্সা অনুমোদনে ব্যাপক দূর্নীতি করে থাকে। তার সাথে চুক্তি ছাড়া কোন নক্সা অনুমোদন হয় না। সরকার যদি দশ হাজার টাকা পায়, সে নেয় এক লক্ষ টাকা। অতএব, তদন্তপূর্বক তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।  ১৩। পৌর ইঞ্জিনিয়ার বেলাল, পৌরসচিব বিপ্লব চন্দ্র মুহুরি, সহকারী সচিব শিহাব উদ্দীন ও লাইনম্যান মনোয়ার হোসেনসহ আমলা-সিন্ডিকেটে জড়িত, তাদেরকে এক সপ্তাহের মধ্যে অপসারণ করতে হবে।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, সন্ত্রাসী আর পুলিশের ভয় দেখিয়ে জনতার আন্দোলন বন্ধ করা যায় না।এটাই বার বার প্রমাণিত।তাই হাটহাজারী পৌরসভা প্রশাসন কে বলছি ঘোলা পানিতে মাছ শিকার করার চেষ্টা না করে,জনগনের যৌক্তিক দাবি মেনে নিন।অন্যথায় হাটহাজারী পৌরসভার বীর জনতা এই অন্যায়/অত্যাচারের দাঁতভাঙ্গা জবাব দিতে প্রস্তুত আছে।
হাটহাজারী পৌর নির্বাচন দেয়ার দাবি জানিয়ে বক্তারা বলেন, সহায়ক কমিটির সদস্য এবং স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনার মাধ্যমে পৌরসভার কার্যক্রম পরিচালনার জন্য আমাদের ১৩ দফা দাবি মেনে নিতে হবে। আগামী সপ্তাহের মধ্যে ডিসি ও বিভাগীয় কমিশনার বরাবর স্মারকলিপি প্রদানের কর্মসূচী ঘোষনা করে মানববন্ধন কর্মসুচি সমাপ্ত করা হয়।
এতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. সোলাইমান, হাটহাজারী ওলামা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা জাফর আহমদ, পৌরসভা ৮ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি সেকান্দর তুহিন, ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি মো.কামাল উদ্দীন, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশ হাটহাজারী থানা শাখার প্রচার সম্পাদক মাওলানা কাজী সফিউল্লাহ, সহ-প্রচার সম্পাদক মাওলানা এমরান সিকদার, বিশিষ্ট সমাজসেবক ইসহাক আলী, মাওলানা কাওসার হামিদ, হাটহাজারী পৌরসভা আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি এস.এম. জাকের হোসেন, ৭ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. লোকমান, জেলা পরিষদ মার্কেটের সভাপতি মাওলানা হাফেজ ওয়াহিদুল্লাহ, মাওলানা হাবিবুল হক বাবু, মাওলানা আলমগীর,মোহাম্মদ রাশেদ, আবছার সিকদার, মাওলানা মুহাম্মদ আসাদুল্লাহ, মাওলানা হাবিবুর রহমান হাবীব, সিরাজুল ইসলাম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com