বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০, ০৫:০১ অপরাহ্ন

যশোরের খোলা বাজারে চড়া দামে জ্বালানি তেল বিক্রয়, দেখার কেউ নেই ?

যশোরের খোলা বাজারে চড়া দামে জ্বালানি তেল বিক্রয়, দেখার কেউ নেই ?

যশোর সদর থানা প্রতিনিধি ঃ

পাম্প মালিক ও জ্বালানি তেল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের অনির্দিষ্টকালে ডাকা ধর্মঘটের সুবাদে যশোরের বিভিন্ন স্থানে খোলা বাজারে চড়া দামে জ্বালানি তেল বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। সোমবার যশোরের বিভিন্ন স্থান ঘুরে এ চিত্র দেখা যায়। জানা যায়, পাম্প মালিক ও জ্বালানি তেল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের অনির্দিষ্টকালের ডাকা ধর্মঘটে যশোরের কুয়াদা, সতীঘাটা, রাজারহাট, মুড়লী, চাঁচড়া, আরবপুর, পালবাড়ি, হাশিমপুরসহ বিভিন্ন স্থানে অবাধে চড়া দামে তেল বিক্রির হিড়িক পড়েছে। সোমবার যশোরের কুয়াদা বাজারে জামজামি গ্রামের মৃতঃ মুছা সরদারের ছেলে আনিস সরদারের দোকানসহ সকল দোকানে ৮৬ টাকার পেট্রোল ১৫০ টাকা ও ৬৫ টাকার ডিজেল ৮০ টাকা দরে বিক্রয় করতে দেখা গেছে। স্থানীয় চালকদের সাথে কথা বলে জানা যায়, গাড়ি চালাত হলে তেল দরকার, যেহেতু পাম্প থেকে তেল পাওয়া যাচ্ছে না সেহেতু সিন্ডিকেটের কাছ থেকে চড়া দামে তেল কিনতে হচ্ছে। অন্যদিকে তেল সরবরাহ না থাকায় রাস্তায় যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক না থাকায় জনগণ চরম ভোগান্তির মধ্যে দিন পার করছে। সাধারন জনমনে একটাই প্রশ্ন, পাম্প ও তেলসরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের ধর্মঘট চলার পরেও জনগনকে জিম্মি করে খোলা বাজারে চড়া দামে জ্বালানী তেল বিক্রি করার জন্যই কি এই ধর্মঘট ? নাকি এর পেছনে অন্য কোন কারন আছে ? কে বা কারা এর পেছনে জড়িত ? এ বিষয়ে খোলাবাজারে তেল ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলতে চাইলে কেউ কেউ বলেন আমরা যেমন কিনবো তেমন বিক্রি করবো এটাইতো স্বাভাবিক। আমাদেরকেও বেশি দামে কিনতে হচ্ছে, বেশি দামে বিক্রি করছি। সাধারন জনগণ ও চালকদের প্রশ্ন, তেল সরবরাহ বন্ধ থাকলে, এই ব্যবসায়ীরা চড়া দামে কোথা থেকে জ্বালানী তেল কিনছে? স্থানীয় জনগন ও চালকেরা এ জিম্মিদশা থেকে মুক্তি চায়। সংশ্লিষ্ট দপ্তরের নিকট তাদের দাবি, বিষয়টির আশু সমাধান পূর্বক তাদের এ জিম্মিদশা থেকে মুক্তি দেওয়া হোক।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com