মঙ্গলবার, ৩১ মার্চ ২০২০, ০৩:৪৯ অপরাহ্ন

মাগুরায় আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৪ সদস্য আটকঃএকটি মোবাইল উদ্ধার ও দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র জব্দ।

মাগুরায় আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৪ সদস্য আটকঃএকটি মোবাইল উদ্ধার ও দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র জব্দ।

মোঃশাহারুল ইসলাম মাগুরা প্রতিনিধি
মাগুরায় সাম্প্রতি চাঞ্চল্যকর ঘটে যাওয়া তিনটি ডাকাতির ঘটনায় ১০ ডিসেম্বর মঙ্গলবার রাতে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের চার সদস্য আটক। মাগুরায় সম্প্রীতি ঘটে যাওয়া আলোচিত তিনটি ডাকাতির ঘটনায় মামলাগুলো রুজু হওয়ার পর তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় সহকারী পুলিশ সুপার আবির সিদ্দিকী শুভ্র জানতে পারেন মাগুরার বিভিন্ন এলাকায় নিয়মিত ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত ঝিনাইদহ ফরিদপুর ও মাগুরার একটি ডাকাত চক্র দল।তারা মাগুরা জেলার বিভিন্ন থানা এলাকায় ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের সাথে জড়িত। যার পরিপ্রেক্ষিতে গত ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ দিবাগত রাতে পুলিশ সুপার মাগুরা খান মোহাম্মদ রেজওয়ানের নির্দেশে শালিখা, শ্রীপুর, এবং সদর থানা পুলিশের একটি যৌথ টিম নিয়ে মাগুরা জেলার বিভিন্ন এলাকায় উক্ত ঘটনার সাথে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান পরিচালনা করে। উক্ত অভিযানের মাধ্যমে উল্লেখিত তিনটি ঘটনার সাথে সরাসরি জড়িত আসামি ফরিদপুর জেলার নগরকান্দা থানার গোয়ালপাড়া সিয়ের গ্রামের মৃত সেকেন্দার মিয়ার ছেলে আসামি (১)মিজানুর রহমান ( ৫২) ( ২) মাগুরা জেলার মাধবপুর গ্রামের মৃত লোকমান মুন্সীর ছেলে মোহাম্মদ রাসেল মুন্সি (৩০)(জনৈক আসাদের বাড়ির ভাড়াটিয়া) (৩) মাগুরা জেলার সদর থানার আজমপুর গ্রামের বাকি মোল্লার ছেলে আলমঙ্গীর ওরফে সান্টু মোল্লা (৩০) এবং( ৪)মাগুরা সদর থানার কাদিয়াবাদ গ্রামের আলতাব হোসেনের ছেলে আলী হোসেন(৩২) ডাকাত গনদেরকে গ্রেফতার করে। উক্ত গ্রেফতার অভিযানের সময় আসামি মিজানুর রহমান, রাসেল মুন্সী, আলমঙ্গীর ওরফে সান্টু মোল্লাদের কাছ থেকে লুণ্ঠিত মোবাইল ফোন উদ্ধার পুর্বক জব্দ করা হয়। তাদের প্রত্যেকের নিকট থেকে দা, রামদা সহ দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র এবং আসামী রাসেলের নিকট হতে একটি কালো রংয়ের খেলনা পিস্তল জব্দ করা হয়। ঘটনা (১)গত ২৬/১০/১৯ তারিখে রাত আনুমানিক ৮.৩০ মিনিটের সময় শামীম খন্দকার ও সঙ্গী রাজিবুল ইসলাম কে নিয়ে মাগুরা পিয়ারলেস মেডিকেল সেন্টারের প্রচার কাজ শেষে মাগুরা ফেরার পথে শ্রীপুর থানার গোবিন্দপুর বিলের মাঝে পৌঁছালে ৮ জন ছিনতাইকারী তাদের গতিরোধ করে নগদ টাকা, মোবাইল ফোন ও ইজিবাইক ছিনিয়ে নেয়। উক্ত ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে শ্রীপুর থানায় প্যানেল কোড ৩৯২ অনুযায়ী ২৭/১০/১৯ তারিখে একটি মামলা রুজু করা হয়। ঘটনা(২)গত ৬/১১/১৯ তারিখে শ্রীপুর থানাধীন রায়নগর গ্রামের সুমন মোল্লা পিতা আশরাফ মোল্লা রাত আনুমানিক ২.২৫ মিনিটের সময় ওয়াপদার মোড়ে পৌঁছামাত্রই কয়েকজন ছিনতাইকারী তাকে গতিরোধ করে মারপিট করে একটি নীল রংয়ের ডিসকভারি ১৩৫ সিসি মোটরসাইকেল যার নাম্বার যশোর- ল -১১-৪৩২১, নগদ টাকা, স্যামসাং গ্যালাক্সি জে -সেভেন মোবাইল ও একটি স্বর্ণের চেইন ছিনিয়ে নেয়। ঐ একই সময় ছিনতাইকারীরা ওর সামনের একটি মাইক্রোবাসের যাত্রীদের নিকট হতে নগদ টাকা ও মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয়। যার পরিপেক্ষিতে শ্রীপুর থানায় প্যানেল কোড ধারা ৩৯৪ অনুযায়ী ৬/১১/১৯ তারিখে একটি মামলা রুজু করা হয়।ঘটনা (৩) অন্যদিকে ২/১২/১৯ তারিখে রাত অনুমান ০০.৩৫ ঘটিকার সময় জনৈক স্বপন কুমার বিশ্বাস পিতা-মৃত সীতানাথ বিশ্বাস শ্রীপুর , মাগুরা সঙ্গীয় সবুজ ঠাকুর ও মিঠুন বিশ্বাস থানা বাঘারপাড়া জেলাঃ যশোরদের কে নিয়ে মাগুরাধীন আসবা গ্রাম হতে নিজ বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা করে, শালিখা থানাধীন বুনাগাতি টু বাউলিয়া রাস্তার শানবান্দা নামক স্থানে পৌছালে অজ্ঞাতনামা ডাকাতরা তাদের গতিরোধ করে নগদ টাকা, মোবাইল ফোন ও মোটরসাইকেল ছিনিয়ে নেয়। যার পরিপেক্ষিতে শালিখা থানায় একটি মামলা ২/১২/১৯ তারিখে করা হয় ৩৯২ পেনাল কোড অনুযায়ী। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে বর্ণিত আসামিরা স্বীকার করে যে তারা আন্তঃজেলা ডাকাত দলের সদস্য। তারা সংঘবদ্ধভাবে মাগুরা জেলার উল্লেখিত তিনটি ঘটনায় জড়িত। এই ঘটনার সাথে জড়িত অন্যান্যদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত আছে বলে জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (শালিখা সার্কেল) আবির সিদ্দিকী শুভ্র।

 

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com