রবিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২০, ০৭:১৩ পূর্বাহ্ন

হাটহাজারীতে স্কেবেটরের আঘাতে ১ ব্যক্তি নিহতের গুজব !

হাটহাজারীতে স্কেবেটরের আঘাতে ১ ব্যক্তি নিহতের গুজব !

মো.আলাউদ্দীন,হাটহাজারীঃ
হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রুহুল আমিনের বিরুদ্ধে গুজব ছড়িয়ে আন্দোলন করার ব্যর্থ চেষ্টা করেছে একটি মহল। সোমবার(২০ জানুয়ারি)রাতে উপজেলা সদরের বাস স্ট্যান্ড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, হাটহাজারী সদরের বাসস্ট্যান্ড এলাকার যানযট নিরসনে সড়ক ও জনপদ বিভাগের সরকারী সম্পদ দখল করে তৈরী করে রাখা অবৈধ স্থাপনা দখলমুক্ত করতে রবিবার এবং সোমবার দুইদিন উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ইউএনও রুহুল আমিন। সোমবার অভিযান শেষে বিকাল ৫ টার দিকে ঘটনাস্থল ত্যাগ করেন অভিযানে অংশগ্রহনকারীরা সহ ইউএনও রুহুল আমিন। পরবর্তীতে কিভাবে এগুতে হবে সেই বিষয়ে শ্রমিক নেতাদের সাথে বিকাল ৫.৪০ মিনিটে আলোচনাও হয় তার। আলোচনা শেষে প্রায় সন্ধ্যার দিকে খবর পাওয়া যায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে সবকিছু পরিষ্কার করে দেয়া হবে ঘোষণার পরও উচ্ছেদকৃত জায়গা থেকে মালামাল সরাতে গিয়ে ইটের আঘাতে এক ব্যক্তি আহত হয়েছ। স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে বাসস্ট্যান্ড এলাকার একটি ক্লিনিকে এবং পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে একটি মহল ইউএনও উচ্ছেদ অভিযান চালানোর সময় স্কেবেটর দিয়ে এক ব্যক্তিকে হত্যা করেছেন এমন গুজব ছড়িয়ে দিলে মুহূর্তের মধ্যে হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ করতে অসংখ্য মানুষ বাসস্ট্যান্ড এলাকায় জড়ো হতে থাকে। এসময় বিক্ষোভে নেতৃত্ব দিতে রাস্তা চওড়াকরণ উদ্যোগের ঘোর বিরোধী এক নেতাও ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় বলে সূত্রে জানা যায়। গুজব সৃষ্টিকারীরা এ সময় সবাইকে বাসস্ট্যান্ডে জড়ো হয়ে সব ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দিয়ে সড়ক অবরোধ করতে বলে এবং
বিভাগীয় কমিশনারের পক্ষ থেকে উচ্ছেদ অভিযানে নেতৃত্বদানকারী ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও)কে প্রত্যাহারের ঘোষণার দাবীতে আন্দোলন করবে বলেও ঘোষণা দেয়। এদিকে তৎক্ষনাৎ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে খোজখবর নিয়ে জানা যায় ঐ আহত ব্যক্তি কাশেম মারা যাননি। হোটেল কর্মচারি আহত কাশেম জানান, উচ্ছেদ অভিযানে স্কেবেটর এর আঘাতে নয় তিনি অভিযান শেষে উচ্ছেদকৃত দোকানের মালিকের কথায় মালামাল সরাতে গিয়ে ইটের আঘাতে আহত হন মাত্র।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোহাম্মদ রুহুল আমিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন, জেলা প্রশাসক, পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং হাটহাজারী মডেল থানার সার্বিক সহযোগিতা ও গুজবের বিরুদ্ধে  সতর্ক অবস্থানের কারনেই ষড়যন্ত্রকারী কুচক্রী মহল সফল হতে পারেনি। যারা এই গুজব প্রতিরোধে পাশে থেকে ভূমিকা রেখেছেন তাদের প্রতিও কৃতজ্ঞতা জানান ইউএনও রুহুল আমিন।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com