বৃহস্পতিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:২৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
আবারও হাটহাজারী মাদরাসায় আন্দোলনে নেমেছে শিক্ষার্থীরা : আহমদ শফী সহ শিক্ষকদের রুমের দরজা ভেঙ্গে লুটপাট ! ২৪ ঘন্টায় গ্রুপ বীমা দাবি পরিশোধ করলো মার্কেন্টাইল ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স-সময়ের ধারা শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মুখে হাটহাজারী মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষা সচিব শফী পুত্র আনাস মাদানীকে অব্যাহতি ! মার্কেন্টাইল ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সে অনলাইন সফটওয়্যার উদ্বোধন ও প্রশিক্ষন-সময়ের ধারা লক্ষ্মীপুরে কমিউনিটি ক্লিনিকে অনিয়মের অভিযোগ-সময়ের ধারা ছাত্রলীগ আমার অহংকার,,কাজী নিজাম-সময়ের ধারা রোহিঙ্গা গণহত্যার স্বীকারোক্তি দেওয়া দুই সেনা কোথায় রাষ্ট্রীয় ৩৩ প্রতিষ্ঠানের ঋণ ২৯ হাজার কোটি টাকা মসজিদে বিস্ফোরণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৯ ঢাকা-৫ এর নৌকার মাঝি মনু; যাত্রাবাড়ী থানা প্রেস ক্লাবের ফুলেল শুভেচ্ছা
অনিয়মের কারণে লাইসেন্স বাতিল; হালট্রিপের ফাঁদে পড়ে ধরা ট্রাভেল এজেন্টরা

অনিয়মের কারণে লাইসেন্স বাতিল; হালট্রিপের ফাঁদে পড়ে ধরা ট্রাভেল এজেন্টরা

বাড়তি ছাড়ের আশায় হালট্রিপে উড়োজাহাজের টিকিট কেটে বিপাকে পড়েছেন ট্রাভেল এজেন্টসহ বহু গ্রাহক। প্রতারণার অভিযোগে আগেই দেশের অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সি (ওটিএ) হাল ট্রাভেলের (হালট্রিপ) সঙ্গে ব্যাবসায়িক সম্পর্ক ছিন্ন করে দেশি-বিদেশি বিমান সংস্থা। এর ফলে কোনো উড়োজাহাজ কম্পানির টিকিট বিক্রি করতে পারছিল না প্রতিষ্ঠানটি। এবার হালট্রিপের লাইসেন্স সরকার বাতিল করায় হাপিত্যেশ করছেন প্রতারিত ট্রাভেল এজেন্টরা। তাঁদের অনেকেই পাওনা টাকা ফিরে পেতে মামলা করারও প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

আলোচিত এই অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সির চেয়ারম্যান প্রশান্ত কুমার (পি কে) হালদার আগেই পালিয়েছেন। আর ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) তাজবীর হাসানও দেশে নেই। প্রায় ২৭৫ কোটি টাকা অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ৮ জানুয়ারি পি কে হালদারের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এ রকম প্রেক্ষাপটে হালট্রিপের লাইসেন্স বাতিল করল বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়। গতকাল বুধবার মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব এ এইচ এম গোলাম কিবরিয়া স্বাক্ষরিত এক বাতিল আদেশে বলা হয়েছে, ‘বাংলাদেশ ট্রাভেল এজেন্সি (নিবন্ধন ও নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০১৩-র ৯(১) এর (খ) ও (গ) ধারা মোতাবেক অনিয়ম ও প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আত্মসাৎ করে আইনের শর্ত ভঙ্গ করায় হাল ট্রাভেল সার্ভিসেস লিমিটেডের (হালট্রিপ) নিবন্ধন সনদ নং-০০০৯১১৩ বাতিল করা হলো।’

বাতিল আদেশে আরো বলা হয়েছে, এই এজেন্সির বিরুদ্ধে অনিয়ম, প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আত্মসাৎ ও অন্যান্য অভিযোগ রয়েছে। ১৫ দিন ধরে অফিসে কোনো লোক আসে না। শুনানিতে অংশগ্রহণ না করায় এজেন্সির বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা রয়েছে।

এ ব্যাপারে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব এ এইচ এম গোলাম কিবরিয়া বলেন, ‘তারা পলাতক, আমাদের শুনানিতে আসেনি। আইনত আমরা লাইসেন্স বাতিল করেছি। আইনে আমাদের এইটুকুই করণীয় আছে।’

বেসরকারি ট্রাভেল এজেন্ট ট্যুরিজম উইন্ডোর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মানিরুজ্জামান মাসুম বলেন, ‘যারা নন-আইয়াটা এজেন্সি আছে (যাদের ব্যাংক গ্যারান্টার নেই) তাদের প্রায় প্রত্যেকের দুই লাখ থেকে কোটি টাকা পর্যন্ত হালট্রিপের কাছে জামানত রাখা আছে। কিন্তু এটা বন্ধ হয়ে যাবে ভাবিনি। এখন আমরা বড় বিপদে পড়েছি।’ তিনি জানান, যেসব যাত্রী টিকিট কেটে ফেলেছেন তাঁদের সমস্যা হওয়ার কথা নয়, কিন্তু যাঁরা রিফান্ড কিংবা সংশোধন করতে চাইবেন তাঁদের অসুবিধা হতে পারে। কারণ এয়ারলাইনস রিফান্ড দেবে হালট্রিপের অ্যাকাউন্টে। হালট্রিপ আবার এজেন্সিকে দেবে, এরপর গ্রাহক টাকা পাবেন। কিন্তু হালট্রিপ তো বন্ধ হয়ে গেল।

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস সূত্র জানায়, হালট্রিপের টিকিট বুকিং তারা আগেই বন্ধ করেছে। বিমানের পাওনা পরিশোধ না হওয়া পর্যন্ত রিফান্ড দেওয়া হচ্ছে না।

তবে ইউএস-বাংলার মহাব্যবস্থাপক (জনসংযোগ) মো. কামরুল ইসলাম বলেন, ‘হালট্রিপের কাছে প্রত্যেকটি এয়ারলাইনসেরই টাকা পাওনা আছে। কিন্তু এয়ারলাইনসগুলো এখনো চিন্তিত নয়, কারণ হালট্রিপ ইন্টারন্যাশনাল এয়ার ট্রান্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশন (আয়াটা) নিবন্ধিত। তারা টাকা না দিলেও আয়াটা আমাদের টাকা মাসখানেকের মধ্যে দিয়ে দেবে। কিন্তু যাত্রী টিকিট কেটে থাকলে তাঁরা আমাদেরই যাত্রী। আমরা এখন পর্যন্ত তাঁদের টিকিট নিতে অস্বীকৃতি জানাইনি। ফলে যাত্রীদের সমস্যা হওয়ার কথা নয়।’

হালট্রিপ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ট্রাভেল এজেন্সিগুলো বিপাকে পড়েছে বলে জানিয়েছেন অ্যাসোসিয়েশন অব ট্রাভেল এজেন্টস অব বাংলাদেশের (আটাব) সাবেক সভাপতি এস এন মঞ্জুর মোর্শদে। তিনি বলেন, ‘আমরা বিভিন্ন সময় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়কে বলে আসছি, অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সির জন্য নীতিমালা প্রয়োজন। যারা এই ব্যবসার সঙ্গে জড়িত তারা ঝুঁকিতে আছে। আমাদের ট্রাভেল এজেন্টরা হালট্রিপের সঙ্গে ব্যবসা করে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। অনেকেই টাকা ফেরত পাচ্ছেন না। যেসব গ্রাহক টিকিট কেটেছেন তাঁদের ভ্রমণ তারিখ পরিবর্তন কিংবা রিফান্ডের ক্ষেত্রে যে সহযোগিতা পাওয়ার কথা তা তাঁরা পাচ্ছেন না।’

তবে ট্রাভেল এজেন্সি নিবন্ধন আইনের সংশোধনী আনা হচ্ছে জানিয়ে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মহিবুল হক বলেন, ‘আমরা আইন পরিবর্তন করছি। মন্ত্রিসভায় এটির খসড়া অনুমোদিত হয়েছে। এটি চূড়ান্ত হলে শুধু লাইসেন্স বাতিল নয়, হালট্রিপের মতো কম্পানির বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থাও নেওয়া যাবে।’

তিনি বলেন, হালট্রিপ ট্রাভেল এজেন্টদের কম দামে টিকিট দেওয়ার কথা বলে সিকিউরিটি মানি জমা নিয়েছে। যাদের হালট্রিপ প্রতারিত করেছে তারা ফোজদারি মামলা করতে পারে।

এদিকে হালট্রিপের এমডি তাজবীর হাসানের সঙ্গে বারবার ফোনে যোগাযোগ করেও তাঁর বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে প্রতিষ্ঠানটির কো-অর্ডিনেশন ম্যানেজার রাশেদ মনির বলেন, ‘ট্রাভেল এজেন্টদের পাওনা পরিশোধের বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বলতে পারবে। এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের অফিস কিছুদিন বন্ধ ছিল (১৩ জানুয়ারি থেকে ২৫ জানুয়ারি), কিন্তু আমাদের অফিসে আসতে বলা হয়েছে। আমি যত দূর জানি, ম্যানেজমেন্ট থেকে ট্রাভেল এজেন্টদের একটি মেসেজ দেওয়া হয়েছে, আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারির মধ্যে টাকা ফেরত দেওয়ার।

এদিকে হালট্রিপ নিয়ে আগে সতর্কবার্তা দিয়েছিল আটাব। সংগঠনটি হালট্রিপের সঙ্গে ব্যাবসায়িক সম্পর্ক না রাখার জন্য ট্রাভেল এজেন্টদের বলেছিল।

হালট্রিপের প্রতারণার কারণে ভালো অনলাইন ট্রাভেল এজেন্সিগুলোরও ব্যবসায় নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ মনিটরের সম্পাদক কাজী ওয়াহিদুল আলম। তিনি বলেন, ‘হালট্রিপের ঘটনায় দেশের অন্য অনলাইন ট্রাভেল এজেন্টের প্রতি গ্রাহকদের আস্থাহীনতা তৈরি হয়েছে, যা এই শিল্পের জন্য ভালো লক্ষণ নয়। বিশ্বজুড়ে অনলাইন ট্রাভেল এজেন্টরাই মূলত এই ব্যবসায় নেতৃত্ব দিচ্ছে। যারা গ্রাহকদের সঙ্গে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী সেবা দিচ্ছে তাদের সুরক্ষা দিতে হবে। একই সঙ্গে গ্রাহকদেরও সচেতন হতে হবে।’

২০১৭ সালের যাত্রা শুরু করে হালট্রিপ। হালট্রিপ মূলত অনলাইনে মাধ্যমে টিকিট বিক্রি করে। ট্রাভেল এজেন্টরা হালট্রিপ থেকে টিকিট কিনতে পারে। কোনো ব্যক্তির কাছে টিকিট বিক্রি করে না হালট্রিপ। এর ৯০ শতাংশ শেয়ার পি কে হালদারের। বাকিটা তাজবীর হাসানের। বেশি ছাড়ে টিকিট বিক্রি করে হালট্রিপ পুরো পর্যটন খাতে একক নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করেছে। প্রতিষ্ঠানটি টাকা পাচারেও জড়িয়ে পড়েছিল বলে সরকারের পক্ষ থেকে অভিযোগ আনা হয়েছে।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com