বুধবার, ০৩ Jun ২০২০, ০৩:৫৯ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম :
লক্ষ্মীপুরে নতুন করে ১১৯ জনের টেস্ট করে ২২ জনের করোনায় পজেটিভ-সময়ের ধারা জালালপুর ইকো রিসোর্ট এ কম্ব্যাটিং কোভিট ১৯ এর উপর কর্মশালা হরিপুরে এসএসসি পরীক্ষায় ফেল করায় আত্মহত্যা নিকলী হাওর আর জালালপুর ইকো রিসোর্ট এর ভ্রমণ গদ্য লক্ষ্মীপুরে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত ব্যক্তির লাশ দাফন করলো সবুজ বাংলাদেশ ইনাফা-সময়ের ধারা কটিয়াদীতে ইসাহাক ভূঁইয়া ফাউন্ডেশন ও জালালপুর ইকো রিসোর্টের উপহার সামগ্রী প্রদান ফরিদপুরে জেলার ভাংগায় সাংবাদিকদের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় ঈদ পূন:মিলনী অনুষ্ঠান বাংলাদেশ নতুন ২৫২৩ জনের করোনা শনাক্ত-সময়ের ধারা একজন আর্দশ শিক্ষকের গল্প লক্ষীপুর রামগতিতে খালের পানিতে ভেসে উঠল কৃষকের লাশ-সময়ের ধারা
কোথায় আমাদের বিবেক? ফারিয়া আক্তার- সময়ের ধারা

কোথায় আমাদের বিবেক? ফারিয়া আক্তার- সময়ের ধারা

কাজী নাঈম,লক্ষীপুর জেলা প্রতিনিধিঃ    কোথায় আমাদের বিবেক?কোথায় আমাদের মনুষ্যত্ব? অর্থ আর স্বার্থের ফাঁদে বন্দী আমাদের বিবেক।চলমান পরিস্থিতি নিয়ে নিম্ন মধ্যবিত্ত এবং হতদরিদ্রের কি আহাজারি,তা আপনি উপলব্ধি করতে পারবেন,কোন দরিদ্র এলাকা বা প্রত্যন্ত গ্রামে গঞ্জে গেলে।
#বলছিলাম; আমি ও একজন নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবারের, আমার নিজের অবস্থা ও খুব খারাপ, এবং আমাদের প্রতিবেশী কয়েকজনের অবস্থা আমাদের চেয়ে ওআরো বেশি খারাপ, একটা লোক সামান্য শসা আর সবজি বিক্রি করত রাস্তা ঘাটে , পরিস্থিতির কারণে তাও বন্ধ,বাধ্য হয়ে শহরে সে চলে গেছে ভিক্ষা করতে, তার বউ সন্তানদের অবস্থা দেখালাম _!সব মিলিয়ে_নিজের এবং তাদের এই পরিস্থিতিতে_ লজ্জা সরম উপেক্ষা করে দুই একজন ফেসবুক ভাইদের কাছে ত্রান চাইলে ওরা আমাকে ফিরিয়ে দেয়নি‌।,সেখান থেকে কিছু টাকা নিয়ে আমি ছুটে যায় প্রতিবেশী হতদরিদ্রের বাসায়,বাসা তো না পলিথিনের তৈরি কুঁড়ে ঘর, তাদের বাড়ির পাশে গিয়ে ৫০০টাকা করে দশটি ঘরে দিলাম, সামনে আমার একটা বান্ধবীর দেখা মীলে, তিনি মোটামুটি সচ্ছল, কোন মতে চলে আর কি, তাকে জিজ্ঞাসা করলাম,কি তোমরা কি কিছু পাচ্ছ?সে বলল হে আজ পর্যন্ত তিন বার ত্রান পেয়েছে, দুই একদিন পর নাকি দশ হাজার টাকা দেবে,লিষ্ট করেছে, যখন বিষয়টা খেয়াল করলাম, দেখলাম তার বাবা খুব আওয়ামী সমর্থিত একজন, এইজন্য যা দুই একটা লিষ্ট আসে তাদের ভাগ্যে ও জুড়ে, আমি বললাম যাক আলহামদুলিল্লাহ বল যা পাইছ সৌভাগ্যের বিষয়।,এর পর আরো দুই একটা ঘরে আমি দিতে গিয়ে, কান্না করে বলছে মা তুমি কার মেয়ে? আমি বললাম ঐযে আপনাদের পাশে আমার ঘর, তাদের চুখ দিয়ে পানি চলে আসল কত কষ্টে আমরা চলতেছি _কেউ আমাদের খবর রাখেনা, তখন আমি ও আবেগী হয় আল্লাহে বললাম, আল্লাহ তুমি যদি আমাকে কিছু টাকা দিতে আমি এদের পাশে দাড়াতাম,
ঢাকা শহরে বা ধনী এলাকাগুলোতে অনেক সময় লোক খুঁজে পাইনা কাকে ত্রান দেবে?,ফলে অনেকে সচ্ছল মানুষেরাও ত্রান পেয়ে থাকেন, কিন্তু আমাদের দেশে এমন কতগুলো দরিদ্র গ্রাম গঞ্জ পার্বত্য বা উপকূলীয় অঞ্চল _যেখানে ধনী মানুষ খুঁজে ও পাওয়া যায় না, তাদের জন্য যেসব ত্রান বাজেট হয় তার বেশিরভাগই উচ্চপর্যায়ের নেতারা খেয়ে ফেলে, সামান্য যতটুকু ত্রান দেওয়া হয়, তাও দলের লোক দেখে দেখে,
যাদের দলীয় পরিচয় নেই_ তাদের লিষ্ট তাদের নাম কেউ দেয়না, তাদের খবর কেউ রাখেনা _তাইতো বলি যেখানে মানবতা নেই_ সেখানে পদদলিত দরিদ্রদের মৌলিক অধিকার।
আজ সত্যি আমি অনেক বেশি কষ্ট পেলাম,,আমরা কি আমাদের পরিচয়? কি???? ভুলে গেলাম আমাদের দায়িত্ব।???????

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com