শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১২:৪৮ অপরাহ্ন

দেশ সেরা ব্যাংক ইবিএল, বেস্ট ট্রেড ব্যাংক এইচএসবিসি ও সম্ভাবনাময় ব্যাংক মেঘনা

দেশ সেরা ব্যাংক ইবিএল, বেস্ট ট্রেড ব্যাংক এইচএসবিসি ও সম্ভাবনাময় ব্যাংক মেঘনা

নিউজ ডেস্ক: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় বাণিজ্য অনুষদের সাম্প্রতিক এক সমীক্ষায় তিনটি ব্যাংক এর নাম উঠে এসেছে কাস্টমার সার্ভিস ও কাস্টমার পার্সেপশন জরিপে। জরিপটি মূলত একটি মাল্টিন্যাশনাল ব্যাংকের সার্ভে যার মূল প্রতিপাদ্য ” রেঙ্কিং অফ ব্যাংকস ইন বাংলাদেশ ইন টার্মস অফ কাস্টমার সার্ভিস এন্ড কাস্টমার পার্সেপশন”। মার্কেট সার্ভেটিতে সহায়তা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ব্যবসায় অনুষদের একদল ছাত্রছাত্রী।

মূলত সার্ভেটি পরিচালিত হয় ব্যাংক সার্ভিসকে দুটি মূল ধারায় ভাগ করে – রিটেইল ও ব্রাঞ্চ সার্ভিসেস অপরটি হলো কর্পোরেট বা ইনস্টিটিউশনাল সার্ভিসেস। রিটেইল বা ব্রাঞ্চ সার্ভেটি পরিচালিত হয় মূলত ‘মিস্ট্রি শপিং’ টেকনিক এর মাধ্যমে যেখানে একজন সার্ভেয়ার নিজে ব্রাঞ্চ এ গিয়ে সার্ভিস সম্পর্কে জানতে চায় এবং স্যাম্পল রান হিসেবে প্রতিটি ব্রাঞ্চের ওয়াক ইন গ্রাহকদের সাথে কথা বলে।

অপরপক্ষে কর্পোরেট বা ইনস্টিটিউশনাল ব্যাংকিং এর সার্ভেটি পরিচালিত হয় প্রায় ছয়শতর বেশি ইনস্টিটিউশনাল গ্রাহক সার্ভের মাধ্যমে যারা কমপক্ষে দুটি ব্যাংক এর সাথে একইসাথে ব্যাঙ্কিং করছেন l মূলত হেড অফ ফিন্যান্স ও হেড অফ কমার্শিয়াল অথবা অনুরূপ দায়িত্বশীলদের ইন্টারভিউ করা হয় প্রায় তিন মাসব্যাপী এই সার্ভেটিতে।

ফলাফল সম্পর্কে বলতে গিয়ে সার্ভে টীম লিড জনাব আব্দুল্লাহ আল মাসুম জানান এটি মূলত মাল্টিন্যাশনাল একটি ব্যাংকের বাজার পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ সম্পর্কিত একটি সার্ভে যা তিন বছর পর পর পরিচালিত হবে। সার্ভেটি পরিচালিত হয় গ্লোবাল মার্কেট ইন্টেলিজেন্স কোম্পানি “মাইন্ড ভ্যালি”র প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে যেখানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল ছাত্রছাত্রী অংশগ্রহণ করেন۔۔ রিপোর্টটি শুধুমাত্র স্পনসর ব্যাংকটির ইন্টেলিজেন্স প্রপার্টি হিসেবে গণ্য হবে।

মূলত কাস্টমার স্যাটিসফেকশন ও পার্সেপশন জানতে অংশগ্রহণকারী দলটিকে প্রায় ৫৫টি ব্যাংক সমীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হয় l ব্যাংকিং এক্সপেরিয়েন্স জানতে কথা বলা হয় প্রায় ৬০০ এরও বেশি লার্জ কর্পোরেট গ্রাহক এর সাথে , যারা কমপক্ষে দুটি ব্যাংকে ব্যাঙ্কিং করে। সমীক্ষাটিতে প্রায় দুইশতর বেশি ইন্টার্ন বা ভলান্টিয়ার কাজ করেন যারা বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ডিপার্টমেনট এর ছাত্রছাত্রীবৃন্দ যার একটি বড় সংখ্যা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের।

সমীক্ষাটিতে কাস্টমার সার্ভিস ও পার্সেপশন জানতে গিয়ে ভালো ও খারাপ দুই ধরণের অনুভূতিই উঠে আসে। রিটেল ও ব্রাঞ্চ সার্ভিস এ নতুন প্রজন্মের প্রায় সবকটি ব্যাংক এখনো অনেক পিছিয়ে। যার কিছু কারণ তুলনামূলক ব্রাঞ্চ সংখ্যা কম, অপর্যাপ্ত এটিএম বুথ, নিরাপত্তা সংশয় ও কম দক্ষ জনবল উঠে আসে। কিন্তু পুরোনো ব্যাংকগুলো রিটেইল ও ব্যাঙ্কিং সার্ভিসেস রেঙ্কিং এ যথেষ্ট ভালো করেছে। এর মধ্যে ইবিএল সর্বোচচ নম্বর পেয়ে তালিকায় প্রথম স্থান অধিকারের পাশাপাশি টপ টেন লিস্টটিতে রয়েছে আট টি লোকাল বা দেশি ব্যাংক। রিটেল ও ব্রাঞ্চ সার্ভিসেস এ ইস্টার্ন ব্যাংক এর সর্বোচচ স্কোরের পাশাপাশি ক্রেডিট কার্ড এক্সপেরিয়েন্স এ সর্বোচচ নম্বর পেয়েছে সিটি ব্যাঙ্ক ও এমেক্স l ক্রেডিট কার্ড মূলত রিটেল ব্যাংকিং এর একটি পরিষেবা।

অপরপক্ষে কর্পোরেট ও ইন্সটিটিউশনাল সার্ভেটিতে টপ স্কোরের তালিকায় রয়েছে মূলত বিদেশী, দেশি ব্যাংকগুলো ও চতুর্থ প্রজন্মের একটি ব্যাংক। কর্পোরেট হাউসগুলোর ফিন্যান্স হেড বা সমমর্যাদার কর্মর্তাদের সমীক্ষায় ইস্টার্ন ব্যাংক ও এইচএসবিসি ব্যাঙ্ক প্রায় সমান রাঙ্কিং পেলেও ট্রেড ব্যাঙ্ক হিসেবে এইএসবিসি ব্যাংকটিকে সর্বোচ স্কোর করেছেন। তালিকায় তৃতীয় পর্যায়ে আরো রয়েছে স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক। টপ ফাইভ তালিকায় আরো স্থান করে নিয়েছে চতুর্থ প্রজন্মের ব্যাংক মেঘনা। ব্যাংকটির ওভারঅল স্কোর অনেক দ্বিতীয় ও তৃতীয় প্রজন্মের ব্যাংকের চেয়েও বেশি হওয়ার পিছনে মূল কারণ হিসেবে জরিপকারীদল মূলত একটি সেগমেন্টএ অতিমূল্যায়নকেই কারণ হিসেবে দেখছেন।

সামগ্রিক স্কোর বিবেচনায় জরিপটিতে দেশীয় ইস্টার্ন ব্যাংক সর্বোচ্চ নম্বর পেয়েছে। তালিকায় আরো রয়েছে এইচএসবিসি, স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ও ব্র্যাক ব্যাঙ্ক। একই জরিপে সম্ভাবনাময় ব্যাংক হিসেবে নতুন প্রজন্মের মেঘনা ব্যাংককে দেখা হচ্ছে।

প্রতি তিন বছর পর পর সমীক্ষাটি চলবে বলে জানান মাইন্ড ভ্যালি বাংলাদেশ চ্যাপ্টারএর মূখপাত্র ও সমীক্ষা দলটির টীম লিড জনাব আব্দুল্লাহ আল মাসুম।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com