মঙ্গলবার, ০২ মার্চ ২০২১, ০৫:২৯ অপরাহ্ন

করের দেড় কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

করের দেড় কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভার কর আদায়কারী শফিউল আলম রায়হানের বিরুদ্ধে করের প্রায় দেড় কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সম্প্রতি এমন অভিযোগের পর অভিযুক্ত শফিউলকে সাময়িক বরখাস্ত করে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে পৌর কর্তৃপক্ষ।

এর আগে শেরপুরের এক ব্যবসায়ীকে অপহরণের দায়ে র‌্যাবের হাতে আটক হয়ে কারাগারে যান শফিউল। পরে অভিযুক্ত শফিউলের ভাই শ্রীপুর পৌরসভা থেকে প্রত্যয়নপত্র আনতে গেলে অপহরণের দায়ে গ্রেফতারের বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায়।

পরে পৌর সচিব দলিল উদ্দিনের নেতৃত্বে কর আদায় শাখার আলমারি খুলে ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের কর আদায় বহি ৫০৮ হতে ৫১৫ এবং ২০২০-২০২১ অর্থবছরের ৫১৬ হতে ৫২৪ নং বহির অবশিষ্ট অংশ উদ্ধার করে। শফিউল এ বহি গুলোর মাধ্যমে আদায়কৃত অর্থ পৌর তহবিলে জমা না দিয়ে নিজ হেফাজতে রেখে আত্মসাৎ করেছে বলে প্রাথমিক তদন্তে সত্যতা পাওয়া গেছে।

পৌর হিসাবরক্ষক ইদ্রিস আলী জানান, তিনি গত ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের সকল আদায়কৃত রশিদ জমা দেওয়ার জন্য কর আদায়কারী শফিউলকে লিখিত আদেশ দিলেও তিনি জমা দেননি। তা ছাড়া তিনি হিসাব শাখার প্রত্যয়ন ব্যতিত রশিদ বই ইস্যু না করার জন্যও স্টোরকিপার তৌফিক কে লিখিত নির্দেশনা দিয়েছিলেন। অজ্ঞাত কারণে তা মানা হয়নি।

এ বিষয়ে পৌরসচিব দলিল উদ্দিন জানান, গত ১৭ ফেব্রুয়ারী তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তা ছাড়া ২২ ফেব্রুয়ারি পৌর কাউন্সিলর আলী আজগরকে আহবায়ক করে ৪ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী ৭ কর্মদিবসের মধ্যে তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন দাখিল করতে বলা হয়েছে।

এদিকে গঠিত তদন্ত কমিটি নিয়ে শ্রীপুর উপজেলা নাগরিক অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের আহবায়ক আনোয়ার হোসেন বলেন, এটা নিজেদেরকে বাচাঁনোর তদন্ত কমিটি। দীর্ঘদিন ধরে যাদের ছত্রছায়ায় পৌর কর জমা না দিয়ে আত্মসাৎ করলো, তারা সদস্য বা সদস্য সচিব হলে কী তদন্ত হবে, তা সকলেই অবগত।

এ বিষয়ে পৌর মেয়র মো.আনিছুর রহমান জানান, কর আদায়কারী শফিউল আলম রায়হানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের উপর ভিত্তি করে দোষীদের বিরুদ্ধে বিধি অনুসারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com