সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ০৫:৪৩ অপরাহ্ন

জাতির জনকের কালজয়ী নেতৃত্বের কারণে আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি -রংধনু গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো:রফিকুল ইসলাম

জাতির জনকের কালজয়ী নেতৃত্বের কারণে আমরা স্বাধীনতা পেয়েছি -রংধনু গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো:রফিকুল ইসলাম

নিজস্ব প্রতিবেদক,রুপগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জ জেলার রুপগঞ্জের কৃতিসন্তান রংধনু গ্রুপের চেয়ারম্যান বিশিষ্ট শিল্পপতি আলহাজ্ব মো: রফিকুল ইসলাম বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম না হলে কখনোই বাঙালি জাতি স্বাধীনতার স্বাদ পেত না। বাঙালি জাতির হাজার বছরের মহানায়ক জাতির জনকের কালজয়ী নেতৃত্বের কারণে আমরা স্বাধীনতা অর্জন করতে পেরেছি। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু মানেই মানচিত্র,বঙ্গবন্ধু মানেই স্বাধীনতা। অনন্ত মহাকালে বাংলার ইতিহাসে বঙ্গবন্ধুর মতো আরেকজন দেশপ্রেমিক এদেশে জন্ম নাও নিতে পারে। তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু হাজার নয়, লাখো বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি। তার সুযোগ্য উত্তরসূরি বিশ্বশান্তির অগ্রদূত মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে উত্তোরণ হয়ে আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তি উৎসব পালন করছি। মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তি উপলক্ষে নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জের কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ আয়োজিত বিশাল আলোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে রংধনু গ্রুপের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো: রফিকুল ইসলাম এসব কথা বলেন। শুক্রবার বিকেলে কায়েতপাড়ার ইছাখালী এলাকায় ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব শাজাহান ভুইয়া বলেন, স্বাধীনতা ইতিহাস বলতে গেলে বারবার চলে আসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের নাম। জাতির পিতার ব্যক্তিজীবন বলতে কিছুই ছিল না। তিনি সারাজীবন স্বাধীনতার জন্য সংগ্রাম করে গেছেন, স্বল্পায়ুর অর্ধেক সময় কারাকুঠরে কাটিয়েছেন। তার প্রজ্ঞা, মেধা, নেতৃত্ব আর সংগ্রামের কারণে আমাদের স্বাথীনতা অর্জন হয়েছে। পেয়েছি লাল-সবুজের পতাকা।
অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিঃ সহ-সভাপতি খনাদকার আবুল বাশার টুকু, কাঞ্চন পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব রফিকুল ইসলাম, কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের নৌকার মনোনয়ন প্রত্যাশী ও নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের সদস্য মিজানুর রহমান, কেন্দ্রীয় যুবলীগের কর্মসংস্থান সম্পাদক লায়ন শাহিন মালুম, কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিঃ সহ-সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সামসুল আলম, থানা আওয়ামী লীগের সাবেক কার্যকরী সদস্য করিম পাঠান, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি হাফিজুর রহমান ভুইয়া সজিব, রূপগঞ্জ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল করিম মাঞ্জু, আবু হোসেন ভূইয়া রানু, থানা যুবলীগের সাংগঠনিক সস্পাদক মোজাম্মেল হক মিলন, থানা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাছুম চৌধুরী অপু, তারাবো পৌর যুবলীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল আউয়াল, কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আব্দুল আউয়াল, সাংগঠনিক সম্পাদক আলী আজগর, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তরিকুল ইসলাম, কায়েতপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মোশারফ হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা জামান ব্যাপারী, ওসমান গনী, উপজেলা যুবলীগ নেতা হাজী সফিকুল ইসলাম, আমির হোসেন স্বপন, সেচ্ছাসেবক লীগ নেতা মহিউদ্দিন মেম্বার, ইউপি সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন, মাসুম আহমেদ, আবুল হোসেন, আব্দুল হাই, হাজী মতিন, ছাত্রলীগ নেতা লুৎফর রহমার মুন্না, আশফাকুল ইসলাম তুষার, আশরাফুল আলম জেমিন, মহিলা লীগ নেত্রী স্বপ্না আক্তার, ইয়াছমীন আক্তার প্রমুখ।
জনসভা শেষে শাহজাহান ভুইয়া ও রফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে বিশাল র‌্যালি ও শোভাযাত্রা বের হয়। র‌্যালিটি কায়েতপাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে সমাপ্তি হয়।

সময়ের ধারা নিউজটি শেয়ার করুন

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com