বৃহস্পতিবার, ২৯ Jul ২০২১, ০৯:৪২ অপরাহ্ন

প্রবাসীদের বিদেশ যাত্রা অনিশ্চিত

প্রবাসীদের বিদেশ যাত্রা অনিশ্চিত

সারাদেশে চীনের দেওয়া সিনোফার্মের টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এ কার্যক্রমে অগ্রাধিকার তালিকায় প্রবাসীদের রাখা হলেও তারা সংশ্লিষ্ট টিকাদান কেন্দ্রে গিয়ে টিকা পাচ্ছেন না। এখন টিকা সনদ ছাড়া বিদেশেও যেতে পারছেন না প্রবাসীরা। ফলে তাদের বিদেশ যাত্রায় অনিশ্চিয়তা দেখা দিয়েছে।

গতকাল সকালে নগরীর আগ্রাবাদ প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সামনে দুই হাজার প্রবাসী বিক্ষোভ ও অবস্থান কর্মসূচি পালনসহ জেলা প্রশাসককে স্মারকলিপি প্রদান করেন। তাদের দাবি- সংশ্লিষ্ট দপ্তরে গিয়েও কোনো প্রক্রিয়ায় তারা টিকা নিতে পারবেন তার কোনো সঠিক নির্দেশনা দেওয়া নেই। ফলে বিপাকে পড়েছেন তারা।

তাই করোনার টিকা দিতে হয়রানি বন্ধ করে সহজীকরণ করে যাবতীয় নির্দেশনা দিতে হবে। বিক্ষোভ সমাবেশে ভুক্তভোগী অসংখ্য প্রবাসী জানান, সিনোফার্মের টিকাদান কার্যক্রমে অগ্রাধিকারের তালিকায় প্রবাসীদের রাখা হয়েছে। অথচ এ কার্যক্রম শুরু হওয়ার পর চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কেন্দ্রে গিয়ে টিকা গ্রহণ করা যাচ্ছে না। টিকা কেন্দ্র থেকে সিভিল সার্জন কার্যালয়ে যোগাযোগ করার জন্য বলা হচ্ছে। সিভিল সার্জন কার্যালয়ে গেলে তারা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিসে যোগাযোগ করার পরামর্শ দেন। সেখানে গেলে টিকার বিষয়টি স্বাস্থ্য বিভাগের বলে উল্লেখ করা হলেও করণীয় সম্পর্কে তাদের কোনো নির্দেশনা পাওয়া যায়নি। এমন পরিস্থিতির মধ্যে অসংখ্য প্রবাসী দিশাহারা হয়ে পড়েছেন।

তারা আরও জানান, টিকা গ্রহণের জন্য সুরক্ষা অ্যাপসের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করতে হয়। বর্তমানে এই অ্যাপসের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন বন্ধ রয়েছে। তা ছাড়া রেজিস্ট্রেশন করার জন্য জাতীয় পরিচয়পত্র বাধ্যতামূলক। কিন্তু বেশিরভাগ প্রবাসীর জাতীয় পরিচয়পত্র নেই। সে বিবেচনায় প্রবাসীদের জন্য পাসপোর্ট অথবা অন্য কোনো বিকল্প ব্যবস্থা না রাখা বড় আরেক জটিলতা। দীর্ঘদিন বিভিন্ন দেশের সঙ্গে বিমান যোগাযোগ বন্ধ থাকায় অনেক প্রবাসীর ভিসার মেয়াদ ইতোমধ্যে শেষ। অনেকে দেশে একটানা ছয় মাসের বেশি অবস্থান বিদেশ গমনে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। অনেকের বিমানের টিকিটের মেয়াদও শেষ হয়ে গেছে। এভাবে আরও নানা জটিলতায় প্রবাসীরা অনিশ্চয়তার মধ্যে রয়েছে। ২৩ জুন থেকে বাংলাদেশ-আমিরাত ফ্লাইট চালুর কথা রয়েছে। জরুরি ভিত্তিতে প্রবাসীদের সহজ উপায়ে টিকা গ্রহণের ব্যবস্থা করা না গেলে অসংখ্য প্রবাসীর জীবন ধ্বংস হয়ে পড়বে। এতে দেশও বিরাট ক্ষতির সম্মুখীন হবে।

সৌদিয়া আরব প্রবাসী সৈয়দ আহমদ আমাদের সময়কে বলেন, আমরা বিক্ষোভ করছি শুধু করোনার টিকা নিতে গিয়ে যেন প্রবাসীদের হয়রানির শিকার হতে না হয়। সরকারকে অনুরোধ করব, সহজ পন্থায় আমাদের টিকা দিন, যাতে আমরা বিদেশে গিয়ে জটিলতায় না পড়ি।

প্রবাসীদের টিকা নিতে হলে কী করতে হবে জানতে চাইলে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. শেখ ফজলে রাব্বি বলেন, প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের চট্টগ্রাম অফিসে তাদের যোগাযোগ করতে হবে। সেখানে নাম এন্ট্রি করে তারা সুরক্ষা অ্যাপসের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে। এর পর তারা টিকা গ্রহণ করতে পারবেন। টিকার ক্ষেত্রে প্রবাসীদের অগ্রাধিকার থাকলেও তাদের একটা প্রক্রিয়ায় আসতে হবে। এ ক্ষেত্রে কিছুটা জটিলতা রয়েছে।

সময়ের ধারা সংবাদটি শেয়ার করুন এবং আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing & Developed BY ThemesBazar.Com