বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৫২ অপরাহ্ন

মা-বাবার কবরে ‘শ্মশানের’ মাটি, কাঁদলেন শামীম ওসমান (ভিডিও)

মা-বাবার কবরে ‘শ্মশানের’ মাটি, কাঁদলেন শামীম ওসমান (ভিডিও)

ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযোদ্ধাসহ অর্ধশতাধিক মানুষের কবরের ওপর এসে পড়েছে শ্মশানের পুকুর খননের মাটি। ফলে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশ কয়েকটি কবর। এর মধ্যে রয়েছে সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের পরিবারের সদস্যদের কবরসহ কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধার কবর।

এই কবর ঘটনায় ক্ষোভ জানিয়েছেন সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। তিনি নিজেকে একজন ব্যর্থ সন্তান উল্লেখ করে বলেন, তার বাবা-মা-ভাই ও স্বজনদের কবরগুলোও তিনি রক্ষা করতে পারেননি। তিনি ব্যর্থ হয়েছেন বলেই বলেই শ্মশানের মরদেহ পোড়া মাটি দিয়ে তার বাবা-মায়ের কবর ভরা হয়েছে, এসব কথা বলে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন নারায়ণগঞ্জের এই সংসদ সদস্য। কবরের সামনে মোনাজাত ধরে ভেঙে পড়েন কান্নায়।

গতকাল সোমবার দুপুরে নগরীর মাসদাইর এলাকায় কেন্দ্রীয় সিটি কবরস্থান পরিদর্শন করেন নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। এসময় তিনি বলেন, গত ২৭ জুলাই সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর মায়ের কবর জিয়ারতের সময়ও স্বাভাবিক অবস্থা ছিল। সিটি করপোরেশনের নিয়োগকৃত ঠিকাদার কবরস্থানের পাশে শ্মশানের পুকুর খননসহ সংস্কার কাজ করতে গিয়ে কিছু জায়গায় প্রায় ৩ ফুট মাটি ফেলে ভরাট করায় অর্ধশতাধিক কবর সমতলে মিশে গেছে। কয়েকজন মুক্তিযোদ্ধার কবরের সাইনবোর্ড ভেঙে ফেলা হয়েছে।

শ্মশানের মাটি কবরস্থানে রেখে রীতিমতো টিলা বানিয়ে রাখা হয়েছে। শ্মশানের পুকুর কেটে মাটি দেওয়ায় শামীম ওসমানের দাদা খান সাহেব এম ওসমান আলী, দাদি জামিলা ওসমান, বাবা ভাষাসৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক আবুল খায়ের মোহাম্মদ (একেএম) সামসুজ্জোহা, মা ভাষা সৈনিক নাগিনা জোহা ও বড়ভাই মুক্তিযোদ্ধা একেএম নাসিম ওসমানের কবর প্রায় সমতল হয়ে গেছে।

যারা এই কাজ করেছে তারা মুক্তিযোদ্ধাদের অবমাননাসহ ধর্মীয় অনুভূতিতে চরম আঘাত হেনেছে বলে অভিযোগ করেন শামীম ওসমান। সেই সাথে দ্রুততম সময়ের মধ্যে কবরগুলো পূর্বের অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন তিনি। একই সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সিটি করপোরেশনের প্রতি আহ্বান জানান সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।

শামীম ওসমান কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, সন্তান হিসেবে তিনি ব্যর্থ হয়েছেব। একজন স্থানীয় সংসদ সদস্য হয়েও যে তিনি তার বাবা-মায়ের কবরের পবিত্রতা হেফাজত এবং বীর মুক্তিযোদ্ধাদের কবরগুলোকে অবমাননার হাত থেকে রক্ষা করতে পারেননি সেজন্য আক্ষেপ প্রকাশ করেন শামীম ওসমান। তিনি কাউকে দোষারোপ করছেন না জানিয়ে এই সাংসদ আরও বলেন, বাবা-মা-ভাই মারা যাওয়ার পর যেমন কষ্ট পেয়েছি, আজও তেমন কষ্ট পেলাম।

সময়ের ধারা সংবাদটি শেয়ার করুন এবং আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing by Raytahost.com