রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ১১:৩৫ অপরাহ্ন

ছাগল প্রবেশের জেরে মারধর শেষে গৃহবধূর চুল কর্তন, গ্রেপ্তার ৩

ছাগল প্রবেশের জেরে মারধর শেষে গৃহবধূর চুল কর্তন, গ্রেপ্তার ৩

বগুড়ার আদমদীঘিতে প্রতিবেশী আত্মীয়ের বাড়িতে ছাগল প্রবেশ করার জেরে এক গৃহবধূকে মারধর শেষে তার মাথার চুল কেটে দেওয়ার ঘটনায় তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার সান্তাহার ইউনিয়নের দমদমা উত্তরপাড়া থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এর আগে দুপুরে ওই গৃহবধূর বাবা বগুড়ার গোদাপাড়ার নুর ইসলাম বাদী হয়ে সাতজনের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। সেই মামলায় উপজেলার দমদমা গ্রামের বাসিন্দা কাজী আমজাদ হোসেনের ছেলে কাজী এমরান হোসেন শাহিন (৫৫), তার ছোট ভাই কাজী ফরহাদ হোসেন (৫০) ও ফরহাদের স্ত্রী নারগিস বেগমকে (৩৭) গ্রেপ্তার করা হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, পূর্ব শত্রুতার জের ও গত ১৩ আগস্ট প্রতিবেশী মামার বাড়িতে ছাগল প্রবেশ করা নিয়ে উপজেলার দমদমা গ্রামের উত্তরপাড়ার বাসিন্দা উজ্জ্বলের স্ত্রীর সঙ্গে আসামিদের ঝগড়াঝাটি হয়। এর জেরে গত সোমবার রাত ৯টায় উজ্জ্বলের বসতবাড়িতে গ্রেপ্তারকৃত আসামিরা অনাধিকার প্রবেশ করে তার স্ত্রীকে মারপিট করে মাথার চুল কেটে দেয়। এ সময় ওই গৃহবধূর ছেলের চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে উদ্বার করে হাসপাতালে ভর্তি করান।

পরে মঙ্গলবার দুপুরে ওই গৃহবধূর বাবা আদমদীঘি থানায় সাতজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও কয়েকজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করলে তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে আদমদীঘি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জালাল উদ্দীন জানান, মামলা রুজু হওয়ার পর অভিযুক্ত তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য তৎপরতা চালানো হচ্ছে।

 

সময়ের ধারা সংবাদটি শেয়ার করুন এবং আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing by Raytahost.com