বৃহস্পতিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৫৫ অপরাহ্ন

এলপিজির মূল্য সমন্বয়ে আজ গণশুনানি

এলপিজির মূল্য সমন্বয়ে আজ গণশুনানি

আবারও এলপিজির মূল্য সমন্বয়ের গণশুনানি করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। বছরের শুরুর দিকে এক দফা শুনানি করে দাম বেঁধে দেওয়ার পর আজ সোমবার আবারও গণশুনানির করতে যাচ্ছে বিইআরসি। বিইআরসি সূত্রে জানা যায়, বেঁধে দেওয়া দরে এলপিজি মজুদকরণ ও বোতলজাতকরণ চার্জ, পরিবেশক এবং খুচরা বিক্রেতা চার্জের বিষয়ে আপত্তি তুলেছে এলপিজি ব্যবসায়ীরা। দেশের ১৮টি এলপিজি বিপণন কোম্পানি এসব বিষয়ে বিইআরসির বেঁধে দেওয়া চার্জ পরিবর্তনের আবেদন করেছে। কমিশন সেই আপত্তি গণশুনানির মাধ্যমে নিষ্পত্তি করতে চায়। প্রথমবার গণশুনানির পর কমিশন ১২ এপ্রিল সারাদেশে এক দরে এলপিজি বিক্রির দাম ঠিক করে দেয়। এরপর সৌদি কন্ট্রাক্ট প্রাইস সৌদি সিপি অনুযায়ী প্রতিমাসেই কমিশন দাম নির্ধারণ করে। তবে ঘোষিত দরে দেশের কোথাও এলপিজি বিক্রি ঠিক রাখা যায়নি। উল্টো এলপিজির দর নির্ধারণ সঠিক হয়নি দাবি করে এলপিজি ব্যবসায়ীদের সংগঠন লোয়াব গত ১৫ জুন এক সংবাদ সম্মেলন করে বলে, ইআরসির জন্য দেশের এলপিজি বাণিজ্য ধ্বংস হতে চলেছে। সংবাদ সম্মেলনে লোয়াবের প্রস্তাবের সঙ্গে বিইআরসি ৫-৬টি কস্ট কম্পোনেন্টের ক্ষেত্রে বড় ধরনের গরমিল থাকার কথা জানানো হয়। উল্লেখ্য, দেশের ১৮টি এলপিজি অপারেটর ২৯ মে থেকে ৩ জুনের মধ্যে বিইআরসির কাছে প্রস্তাব জমা দেয়। বিইআরসি সেই প্রস্তাবের ওপর সরাসরি গণশুনানি করার জন্য ৭ এবং ৮ জুলাই দিন ঠিক করে। ওই সময় দেশে করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় সরকার লকডাউন ঘোষণা করলে বিইআরসি শুনানি স্থগিতে বাধ্য হয়। করোনা সংক্রমণ কিছুটা কমে এলে ১৭ এবং ১৮ আগস্ট ফের শুনানি করার উদ্যোগ নেয়। কিন্তু ওই সময়ে কনজুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ ক্যাবের করা রিট পিটিশন ৫৭৬৩/২০২১ আমলে নিয়ে হাইকোর্ট বিভাগ শুনানি স্থগিতের আদেশ দেন। কমিশন হাইকোর্ট বিভাগের আদেশটির ওপর স্থগিতাদেশ চেয়ে আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালতে আপিল করে। চেম্বার জজ ২৬ আগস্ট হাইকোর্টের আদেশটি ছয় সপ্তাহের জন্য স্থগিত করে। এই সময়ের মধ্যেই বিইআরসি এই শুনানি করছে।

 

সময়ের ধারা সংবাদটি শেয়ার করুন এবং আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing by Raytahost.com