সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১২:১৯ পূর্বাহ্ন

ইউপি কার্যালয়ে বিশেষ কক্ষ, চেয়ারম্যানের অন্তরঙ্গ ভিডিও ফাঁস

ইউপি কার্যালয়ে বিশেষ কক্ষ, চেয়ারম্যানের অন্তরঙ্গ ভিডিও ফাঁস

নেত্রকোণার দুর্গাপুর উপজেলার বিরিশিরি ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) একাধিক নারীর সঙ্গে চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম রুহু’র অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ উঠেছে। পরিষদ ভবনের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষকে এসব কাজের জন্য ব্যবহার করতেন তিনি। সম্প্রতি তার এমন অনৈতিক কর্মকাণ্ডের একটি ভিডিও পাওয়া গেছে। তবে এই অভিযোগকে মিথ্যা বলে দাবি করেছেন চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম।

গোপন ক্যামেরায় ধারণ করা ভিডিওতে দেখা যায়, ইউপি কার্যালয়ের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষে এক নারীর সঙ্গে অনৈতিক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত তিনবারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রুহু। বিষয়টি জানার পর স্থানীয়দের মধ্যে ব্যাপক সমালোচনা তৈরি হয়েছে।

অভিযোগ রয়েছে, ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম এক কিশোরীকে ধর্ষণের ঘটনায় নিজ বাড়িতে সালিস বসিয়ে ৪৫ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন। তার ভয়ে সাধারণ মানুষ কোনো প্রতিবাদ করার সাহস পায় না। চাল চুরির অভিযোগে তিন মাস সাময়িক বরখাস্তও হন চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম।

এ বিষয়ে চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রুহু বলেন, ‘ভিডিও প্রতিপক্ষ আমাকে ঘায়েল করার জন্য বানিয়েছে। আমি জড়িত নই। একশত কোটিবার মিথ্যা।’ ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ের ওই কক্ষে খাট রাখার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘কার্যালয়ে খাট রাখার বিধান নেই। তবে অনেক সময় শরীর খারাপ লাগলে এখানে বিশ্রাম নেই।’

দুর্গাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলা উদ্দিন আল আজাদ বলেন, ‘ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলামের অনেক বয়স হয়েছে। এটি কী করে সম্ভব? আমি চেয়ারম্যানকে ডেকে বিষয়টির ব্যাপারে জিজ্ঞেস করব।’

এ ব্যাপারে দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহনুর-এ আলম বলেন, ‘এসব বিষয়ে কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাজিব উল আহসান জানান, ‘এমন ঘটনা শুনিনি। অভিযোগ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

 

সময়ের ধারা সংবাদটি শেয়ার করুন এবং আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing by Raytahost.com