শনিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২১, ০২:০১ অপরাহ্ন

‘কী দিন আইলো ডাকাতিও করতে পারি না’

‘কী দিন আইলো ডাকাতিও করতে পারি না’

শাবল-হাতুড়ি দিয়ে দেয়াল ভেঙে ব্যাংকের ভেতরে ঢোকেন হৃদয়। ভোল্টের কাছেও যান। কিন্তু বেজে ওঠে সতর্ক সংকেত। ব্যাংকের সিসি ক্যামেরা ইউনিটের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করা হয়। দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে হাজির হয় পুলিশ। অসময়ে পুলিশ দেখে ডাকাত হৃদয় বলে উঠে- ‘কী দিন আইলো ডাকাতিও করতে পারি না।’ গত শনিবার গভীর রাতে ভবনের দেয়াল ভেঙে তারা ডাকাতি করতে চেয়েছিল। গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- মো. রুবেল, মামুন ও হƒদয়। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য গতকাল রবিবার তাদের দুদিনের রিমান্ডে নিয়েছে বাড্ডা থানাপুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, রাজধানীর বাড্ডা লিংক রোডে আইএফআইসি ব্যাংকের শাখায় শনিবার রাত দেড়টার দিকে ডাকাতির চেষ্টা করা হয়। ব্যাংক ভবনের দোতলার কার্নিশে ওঠে তিন ডাকাত। সেখানে বসেই শাবল-হাতুড়ি দিয়ে দেয়াল ভেঙে ব্যাংকের ভোল্টের কাছে যায় হৃদয়। বাকি দুজন বাইরে পাহারায় ছিল। ব্যাংকের সতর্ক সংকেত বেজে উঠলে সিসি ক্যামেরার ইউনিটের নিয়ন্ত্রণ কক্ষ থেকে ৯৯৯-এ ফোন করে বিষয়টি জানানো হয়। দ্রুত এসে ডাকাত হৃদয়, মামুন ও রুবেলকে গ্রেপ্তার করে বাড্ডা থানাপুলিশ।

ঢাকা মহানগর পুলিশের গুলশান বিভাগের উপকমিশনার মো. আসাদুজ্জামান বলেন, ‘ভল্ট ভেঙে টাকা নেওয়ার আগেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় আরও একজন জড়িত ছিল। তাকেও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’ বাড্ডা থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, গ্রেপ্তার তিন জন মহাখালী সাততলা বস্তিতে বসবাস করে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে আবেদন করলে দুদিন মঞ্জুর হয়।

সময়ের ধারা সংবাদটি শেয়ার করুন এবং আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing by Raytahost.com