বৃহস্পতিবার, ২৫ Jul ২০২৪, ০১:৪৭ পূর্বাহ্ন

ঋতু পরিবর্তনে জয়েন্টে ব্যথা? সারানোর ঘরোয়া উপায়

ঋতু পরিবর্তনে জয়েন্টে ব্যথা? সারানোর ঘরোয়া উপায়

ঋতু পরিবর্তনের এই সময়ে সর্দি-কাশি, জয়েন্টের ব্যথায় ভুগছেন অনেকেই। চল্লিশের উপরে যাদের বয়স, তাদের ক্ষেত্রে এই সমস্যা অনেক বেশি দেখা যাচ্ছে। ব্যথার কারণে রাতের ঘুমও ঠিকভাবে হচ্ছে না অনেকের। তাই এই সময়ে থাকতে হবে বিশেষ সতর্ক। কিছু ঘরোয়া উপায় মেনে চললে জয়েন্টের ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব হতে পারে। তবে সমস্যা না সারলে চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে হবে।

হলুদের ব্যবহার

আমাদের সবার রান্নাঘরেই এটি পরিচিত মসলা। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, হলুদে রয়েছে প্রদাহ-বিরোধী বৈশিষ্ট্য। আপনি যদি দুধের সঙ্গে হলুদ মিশিয়ে খেতে পারেন তবে তা শরীরে আরও ভালো কাজ করবে। ঋতু পরিবর্তনের সময় অনেকেই মুখের আলসারে ভুগে থাকেন। তারা ক্ষত স্থানে ও নারিকেল তেলের সঙ্গে হলুদের পেস্ট লাগিয়ে নিলে দ্রুত মুক্তি পাবেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, হলুদের মধ্যে থাকে অ্যান্টিসেপটিক এবং অ্যান্টিবায়োটিক বৈশিষ্ট্য। তাই জয়েন্টের ব্যথায় কার্যকরী একটি সমাধান হতে পারে হলুদের ব্যবহার।

লবঙ্গের ব্যবহার

ছত্রাকের সংক্রমণের কারণে জয়েন্ট ব্যথা হলে লবঙ্গ চিবিয়ে মুখে রেখে দিন। এতে উপকার পাবেন। রাতে জয়েন্টের ব্যথা বাড়লে লবঙ্গ তেল দ্রুত সমস্যার সমাধান করতে পারে। লবঙ্গ তেলের সক্রিয় উপাদান ইউজেনল রক্তকে স্বাভাবিকভাবে পাতলা করতে সাহায্য করে। রক্ত জমাট বাঁধতে দেয় না। কার্ডিওভাসকুলার রোগ থেকেও রক্ষা করে এই তেল।

আদার কার্যকারিতা

রান্নার স্বাদ ও গন্ধ বাড়াতে কাজ করে আদা। সেইসঙ্গে জয়েন্টের ব্যথা কমাতেও কার্যকরী এই উপাদান। এতে আছে ফাইটোকেমিক্যালস, যা ব্যথা সৃষ্টিকারী হরমোনের উৎপাদন ও নিঃসরণ নিয়ন্ত্রণ করে। আদা চা শরীরের শক্তি এবং সতেজতার একটি চমৎকার উৎস। তাই জয়েন্ট ব্যথা সারাতে আদা যোগ করুন বিভিন্ন খাবারের সঙ্গে।

তুলসি খাবেন যে কারণে

তুলসি হলো একটি ভেষজ ওষধি। এটি ব্যবহৃত হয় আয়ুর্বেদিক ওষুধ তৈরিতেও। তুলসিতে আছে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি ও অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট উপাদান। এগুলো ব্যথা দূর করতে কাজ করে। জয়েন্টের ব্যথা সারাতেও সমান কার্যকরী তুলসি। এক গ্লাস গরম পানিতে এক চামচ তুলসির রস মিশিয়ে প্রতিদিন পান করুন। এতে সমস্যা দ্রুতই কমে আসবে।

রসুনের উপকারিতা

শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি ও উচ্চ রক্তচাপ কমাতে কাজ করে রসুন। সেইসঙ্গে এটি সাহায্য করে ১০ থেকে ১৫% পর্যন্ত কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতেও। বিশেষজ্ঞদের বলছেন, রসুনে আছে অ্যান্টিবায়োটিক বৈশিষ্ট্যও। এটি জয়েন্টের ব্যথা দূর করতে কার্যকরী। এছাড়াও ডিমেনশিয়া এবং অ্যালঝেইমার্সের মতো রোগ দূরে রাখতে কাজ করে রসুন।

 

সময়ের ধারা সংবাদটি শেয়ার করুন এবং আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing by Raytahost.com