বৃহস্পতিবার, ২৫ Jul ২০২৪, ০১:৩৫ পূর্বাহ্ন

বিজয়ের দিনে বাংলার মেয়েদের ঐতিহাসিক জয়

বিজয়ের দিনে বাংলার মেয়েদের ঐতিহাসিক জয়

স্পোর্টস ডেস্ক: দক্ষিণ আফ্রিকায় প্রথমবার ওয়ানডে জেতার ইতিহাস গড়লো বাংলাদেশ নারী দল। ইস্ট লন্ডনের বাফেলো পার্কে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে প্রোটিয়া নারীদের উড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশের মেয়েরা। ম্যাচটি তারা জিতেছে ১১৯ রানের বিশাল ব্যবধানে। আর যখন এ জয় তারা নিশ্চিত করেছে, তখন বাংলাদেশে ১৭ ডিসেম্বরের প্রথম প্রহর হলেও দক্ষিণ আফ্রিকায় ঠিকই ১৬ ডিসেম্বর। বাংলাদেশের বিজয় দিবস।

শনিবার (১৬ ডিসেম্বর) বাফেলো পার্ক স্টেডিয়ামে টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে মুর্শিদা খাতুনের ১০০ বলে অপরাজিত ৯১ রানে ভর করে ওয়ানডে ক্রিকেটে নিজেদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ পুঁজির রেকর্ড গড়ে বাংলাদেশ। ৫০ ওভারে ৩ উইকেটে স্কোরবোর্ডে ২৫০ রান তোলে টাইগ্রেসরা। ব্যাট করতে নামা দলের পাঁচ ব্যাটারের রানই দুই অঙ্ক ছুঁয়েছে এদিন। পরে স্বাগতিকরা অলআউট হয়ে গেছে মাত্র ১৩১ রানে। ১১৯ রানের বড় জয় পেয়েছে বাংলাদেশ। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শামীমা সুলতানা ও ফারজানা হকের উদ্বোধনী জুটি থেকে আসে ৬৬ রান। ৩৪ রান করা শামীমা ফিরলে ভাঙে সেই জুটি। এরপর ফারজানাও বেশিক্ষণ টেকেননি। ৭৬ বলে ৩ চারে ৩৫ রান করেন তিনি। তৃতীয় উইকেটে অধিনায়ক নিগার সুলতানা জ্যোতির সঙ্গে ৮০ রানের জুটি বাঁধেন মুর্শিদা।

ভালো খেলতে থাকলেও ৪৮ বলে ৫ চারে ৩৮ রানে আউট হন জ্যোতি। তবে স্বর্ণা আক্তারের সঙ্গে অবিচ্ছিন্ন ৬০ রানের জুটি গড়ে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশের দলীয় সংগ্রহ আড়াইশতে নিয়ে যান মুর্শিদা। এর আগে ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ ছিলো ২৩৪ রান। গত বছর পাকিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে বিশ্বকাপে ৭ উইকেট হারিয়ে এই রান তুলেছিল টাইগ্রেসরা। ২৫১ রানের লক্ষ্য পেয়ে ১৩১ রানেই গুটিয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। শুরু থেকেই স্বাগতিকদের চেপে ধরেন বাংলাদেশের বোলাররা। থিতু হতে দেননি কোনো ব্যাটারকে। দ্বিতীয় ওভারে অধিনায়ক লরা ওলভার্ডটকে তুলে নিয়ে প্রথম আঘাত হানেন সুলতানা খাতুন।

পরের ওভারে আরেক ওপেনার তাজমিন ব্রিটসকে ফেরান পেসার মারুফা আক্তার। এরপর স্পিনারদের কাছে ধরাশায়ী হয়ে পড়ে প্রোটিয়ারা। বাঁহাতি স্পিনে ৩৩ রান খরচ করে একাই তিন উইকেট শিকার করেন নাহিদা আক্তার। কিছুদিন আগেই তিনি পেয়েছেন আইসিসি নভেম্বর মাসের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার। সেই ফর্ম ধরে রাখেন এ ম্যাচে।

সর্বোচ্চ ৩৫ রান করা এলিজ ম্যারি ম্যাক্স ও দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩১ রান করা সুন লুস কাটা পড়েন নাহিদার বুদ্ধিদীপ্ত বোলিংয়েই। এছাড়া দুটি করে উইকেট নেন সুলতানা, রাবেয়া খান ও ফাহিমা খাতুন। যার ফলে ৮১ বল হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করে বাংলাদেশ। এই জয়ে তিন ম্যাচ সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেছে নিগার সুলতানা জ্যোতির দল। ব্যাট হাতে দারুণ ইনিংস খেলায় ম্যাচসেরার পুরস্কার পেয়েছেন মুর্শিদা।সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে আগামী ২০ ডিসেম্বর পচেফস্ট্রুমে মুখোমুখি হবে দুই দল।

সময়ের ধারা সংবাদটি শেয়ার করুন এবং আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing by Raytahost.com