বুধবার, ২৪ Jul ২০২৪, ১১:২২ অপরাহ্ন

ছেলেরা স্বাক্ষী হওয়ায় বাবাকে হত্যা করলেন আসামিরা

ছেলেরা স্বাক্ষী হওয়ায় বাবাকে হত্যা করলেন আসামিরা

বরিশাল ( বাকেরগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ পূর্ব শত্রুতার জেড়ে পরিকল্পিত হামলা করে ৭৬ বছরের বৃদ্ধ হাতেম গাজীকে হত্যার অভিযোগ করেছেন তার স্বজনেরা। মৃত হাতেম গাজী বাকেরগঞ্জ উপজেলার ১০ নং গারুড়িয়া ইউনিয়নের মৃত এলেম গাজীর ছেলে। বাদির ছেলের বিবরণ থেকে জানা যায়,বিবাদীদের সাথে বাদির দীর্ঘদিন যাবৎ জমি-জমা সংক্রান্ত মামলা মোকাদ্দমা চলমান রয়েছে। গত ৪/০৬/২৪ ইং তারিখ বিবাদীরা একত্রিত হয়ে মৃতের ছেলে মুনসুর গাজীর উপড় হেলেঞ্চা ব্রীজের ঢালে প্রকাশ্য দিবালোকে হামলার চেষ্টা করে।

এর পরের দিন সকালে অর্থাৎ ০৫/০৬/২৪ইং তারিখে ফোরকান হাওলাদর,আশ্রাব মৃর্ধা সহ কতিপয় আসামিরা বাদীর ছোট ভাই জামাল গাজীর বসত ঘরে ঢুকে তার ছেলের উপর ও মুনসুর গাজী এবং তার স্ত্রীর উপর হামলা করে রক্তাক্ত যখম করে। উক্ত হামলার মামলায় এজাহার ভুক্ত আসামী ফোরকান হাওলাদার, লিটন হাওলাদার,হারুন হাওলাদার সর্ব পিতা মৃতঃ ফকরুদ্দিন হাওলাদার, আশ্রব মৃর্ধা পিতা হোসেন আলি মৃর্ধাসহ ৪ জন গ্রেপ্তার হন। আসামিরা তার পরের দিন জামিনে এসে পুনরায় তার পরিবারকে হত্যার হুমকি,ধামকী প্রদান করতে থাকেন। এর ধারাবাহিকতায় গত ০৪/০৭/ ২০২৪ ইং তারিখে ১৮৪ নং সি আর মামলায় সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রট আদালত বরিশাল এ আসামিদের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য প্রদান শেষে বাড়ি ফিরলে আসামিরা গালমন্দ এবং হুমকি ধামকী প্রদান করতে থাকেন।

তারা পূর্ব পরিকল্পিতভাবে লাঠি সোটা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে পুনরায় বাদির পরিবারের উপর হামলা করার উদ্দেশ্যে একত্রিত হয়ে ১ নং আসামি ফোরকান হাওলাদারের ঘরে অবস্থান করে। এমন সময় বাদির পিতা মৃতঃ হাতেম গাজী সন্ধ্যার আগ মুহূর্তে বাড়িতে ফিরে ঘরে অবস্থান করতেছিলেন। গালমন্দ করতে শুনে তিনি আসামিদেরকে গালমন্দ করতে নিষেধ করেন। এসময় আসামিরা ক্ষিপ্ত হয়ে ১ নং আসামি ফোরকান হাওলাদার তার ছেলে ফয়সাল হাওলাদার, ফোরকান এর ভাই লিটন হাওলাদার, ফারুক হাওলাদার,ফোরকানের স্ত্রী মাহিনুর বেগম মৃতঃ হাতেম গাজীর দিকে তেরে আসেন। এ সময় হাতেম গাজী আমাকে মারবি, আমাকে মারবি এমনটা বলতে থাকেন। তখন বিবাদীরা তোরে মারলে কি হবে এই বলে ১ নং আসামী ফোরকান হাওলাদার তার ছেলে ফয়সাল হাওলাদার বাদির পিতার দিকে তেরে এসে হাতেম গাজীর মাথা ধরে তার কাঠের ঘরের চৌকাঠের সাথে বাড়ি মেরে ছেড়ে দেন।

এই অবস্থা দেখে বাদী দৌড়ে আসলে বাদীর উপরও আসামিরা হামলা করে কিল, ঘুসি, লাথি মারতে থাকেন। তা দেখে আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে এবং বাদির পিতার অবস্থা আশঙ্কা জনক দেখে আসামিরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে, বাড়ি থেকে বের হয়ে যান। পরবর্তীতে বাদী তার পিতা মৃতঃ হাতেম গাজীকে ধরে উঠাইয়া বসালে তিনি বমি করতে থাকেন। এরপর তাকে খাটের উপর নিয়ে শোয়াইলে তিনি অজ্ঞান হয়ে যান। পরবর্তিতে আশপাশের লোকজন এবং বাদির আত্মীয়-স্বজন এর সহযোগিতায় হাতেম গাজীকে উপজেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজে রেফার্ড করেন। পরবর্তীতে শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ০৫/০৭/২০২৪ ইং তারিখে ভোর ০৫.৩০ মিনিটের সময় তিনি ইন্তেকাল করেন। এ ঘটনায় মৃতের ছেলে বাদি হয়ে বাকেরগঞ্জ থানায় ফোরকান হাওলাদার,ফারুক হাওলাদার, লিটন হাওলাদার,শিপন হাওলাদার,হারুন হাওলাদার সর্ব পিতাঃ মৃতঃ ফকরুদ্দিন হাওলাদার। শুভ মৃর্ধা,পিতাঃ আশ্রাব মৃর্ধা,আশ্রাব মৃর্ধা,পিতাঃ হোচেন আলী মৃর্ধা সহ ১৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

সময়ের ধারা সংবাদটি শেয়ার করুন এবং আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

© All rights reserved © somoyerdhara.com
Desing by Raytahost.com